বাঁকা চাঁদ

আরজু মুক্তা ৯ অক্টোবর ২০২০, শুক্রবার, ০১:৫৩:০৫পূর্বাহ্ন অণুগল্প ২৮ মন্তব্য

আকাশ কতো দূর! অথচ এর মাঝে ছুটে চলা সাদা মেঘগুলো কতো স্বাধীন! ইচ্ছেমতো মন খুলে উড়ে উড়ে চারদিকটা চষে বেড়ায়। হিংসে হয়। আমিও যদি এভাবে উড়ে বেড়াতে পারতাম!  আকাশকে ছুঁয়ে দেখার অনেক সাধ।

বাবা মাকে কথা দিয়েছিলাম প্রেম করবোনা। ওনাদের ইচ্ছেমতোই বিয়ে। পাত্র রাজযোটক। চাওয়ার থেকে পাই বেশি।

: ছাদে যাবে?

: এতো রাতে?

: জোসনা দেখবো!

: জানালা খুলে এখানে বসে দেখো।

: খুব ইচ্ছে তোমার সাথে জোসনা মাখবো।

: হুমায়ুন আহমেদ পড়ে ; মাথা গেছে। আমার দৌড় আবদুল্লাহ আল মূতীর  ” আকাশ ” প্রবন্ধ পর্যন্ত। যা ছোঁয়া যায় না। তা আমার পছন্দ না!

নিজেকে ঘুড়ি বানিয়ে রেখেছি। নিজস্ব স্বাধীনতাটা অন্যের ইচ্ছের মধ্যে আটকে থাকে। একটা আচমকা ঝড় ইচ্ছে করলেই মুক্ত করতে পারে। কিন্তু ঝড়ের তো মতিগতির ঠিক নাই। সীমাবদ্ধতা নাই। ওলট পালট করে দিতে পারে। তাই ঘুড়ির মাঝে গুটিয়ে রাখি।

রবীন্দ্রনাথের ” শেষের কবিতা ” ছুঁয়ে দেখা হয় না! সাগরের ঝিনুক ফোটা জলে মন ভেজাতে ইচ্ছে করেনা।

আড়ং এর স্বর্ণ খচিত, মুক্তো বসানো ব্রেসলেটের দিকে তাকিয়ে একগুচ্ছ রজনীগন্ধা খুঁজি।

৩৬৯জন ১জন
0 Shares

২৮টি মন্তব্য

মন্তব্য করুন

ফেইসবুকে সোনেলা ব্লগ

লেখকের সর্বশেষ মন্তব্য