Google এর অনেক গুরুত্বপূর্ণ সেবার মধ্যে অন্যতম একটি সোস্যাল সেবা হচ্ছে Google+

ফেসবুক, টুইটার এর মত এটিও একটি সোস্যাল প্লাটফর্ম যেখানে ব্যবহারকারীরা তাদের লেখা, স্থিরচিত্র, এনিমেটেড চিত্র কিংবা ভিডিও প্রকাশ করতে পারত। শুধুমাত্র গুগলের একাউন্ট ব্যবহার করেই অন্যান্য অনেক সুবিধার সাথে গুগল তাদের এই সোস্যাল সেবাটি ব্যবহারীকে ব্যবহার করতে দিত।

কিন্তু গেল বছর গুগলের ডেভেলপার প্লাটফর্মে গুগল প্লাসের নিরাপত্তা ত্রুটির কারণ দেখিয়ে বন্ধ করার ঘোষনা দেয় তারা। ওয়াল স্ট্রিট জার্নাল-কে তারা জানায়, গুগল গত মার্চেই তাদের এই নিরাপত্তা ত্রুটিটি ধরতে পেরেছে। আর এই ত্রুটির কারণে নতুন করে কোন সরকারী নীতিমালা লঙ্ঘনের জটিলতা এড়াতে ও টেক ওয়াল্ডে নিজেদের ভাবমূর্তি ধরে রাখতেই প্রাথমিক ভাবে তারা ত্রুটির এই ব্যাপারটি গোপন করে। কিন্তু যখন ত্রুটির এই ব্যাপারটি লিক হয়ে গনমাধ্যমে চলে আসে, তখনই গুগলের শেয়ারের দাম ২ শতাংশ কমে যায়।

২০১১ সালে প্রকাশের পর গত বছর পর্যন্ত গুগল প্লাস সকলের জন্যে অবমুক্ত থাকলেও অন্য সকল সোস্যাল মিডিয়ার তুলনায় গুগল প্লাসের ব্যবহারকারী ছিল খুবই নগন্য। এক সমীক্ষায় দেখা যায় যে ২ দশমিক ২ বিলিয়ন রেজিস্টার্ড ইউজারের বিপরীতে সক্রিয় ব্যবহারকারী ছিল ৩৯৫ মিলিয়ন। কিন্তু এই বিশাল ব্যবহারকারীরা দিনে গড়ে মাত্র ৫ মিনিট (প্রায়) সময় কাটাতো গুগল প্লাসের পেছনে।

গুগল প্লাস বন্ধ হলে বর্তমান সকল ব্যবহারকারীর প্রোফাইল(একাউন্ট) ও পেইজও মুছে যাবে। গুগল প্লাসে পোষ্ট করা সকল ছবি, ভিডিও গায়েব হবে গুগল প্লাস বন্ধ হবার সাথে সাথেই। তাই গুগল তাদের ব্যবহারকারীদের কথা মাথায় রেখে তাদের সকল গুগল প্লাস ডাটা ব্যকআপ ও ডাওনলোডের সুবিধা চালু করেছে। যাতে গুগল প্লাস বন্ধ হলেও তাদের পোষ্ট, ছবি আর ভিডিও গুলো ব্যবহারকারী থেকে হারিয়ে না যায়। তবে এই সুবিধাটি কাজ করবে গুগল প্লাস বন্ধ হবার আগেই। গুগল প্লাস বন্ধ হলে এই সুবিধাটি আর কাজ করবে না।

 

 

 

কিভাবে ব্যাকআপ নিবেন আপনার গুগল প্লাসের ডেটা?

গুগল প্লাসের ডেটা ব্যাকআপ নেবার জন্যে প্রথমে ব্রাউজারে আপনি আপনার গুগল একাউন্টে লগইন করুন। লগইন শেষে নিম্নবর্ণত ধাপ গুলো অনুসরণ করুন-

⦿ গুগল প্লাস ডেটা ডাওনলোডের জন্যে এই পৃষ্ঠাটিতে প্রবেশ করুন।

⦿ সাধারণ ভাবে এই পৃষ্ঠাটিতে আপনার গুগল প্লাসের সকল পোষ্ট, ছবি, ভিডিও, কম্যুনিটি ডেটা ব্যাকআপ করার জন্যে পূর্ব থেকেই সিলেক্ট করা থাকবে। তারপরও যদি আপনি কোন নির্ধারিত বিষয় বন্তু বাদ দিতে বা যুক্ত করতে চান তাহলে ‘All Google+ Stream data included’ লেখাটিতে ক্লিক করুন। তারপর লিস্ট থেকে পছন্দ মত ডেটা সিলেক্ট করুন কিংবা বাদ দিয়ে দিন।

⦿ পছন্দমত ব্যাকআপ করার ডেটা সিলেকশনের পর ‘Next step’ বাটনে ক্লিক করুন।

⦿ নতুন ফর্মে থাকা Delivery method থেকে আপনার সুবিধা অনুযায়ী Delivery মেথড পছন্দ করুন। এখানে ৫ ধরণের মেথড রয়েছে-

— Send download link via email
(আপনার ফাইল গুলোর ডাওনলোড লিংক আপনাকে মেইলের মাধ্যমে পাঠাবে)
— Add to Drive
(আপনার গুগল প্লাসের ব্যাকআপ ফাইল আপনার Google Drive -এ সংরক্ষণ করবে)
— Add to Dropbox
(আপনার গুগল প্লাসের ব্যাকআপ আপনার Dropbox একাউন্টে সংরক্ষণ করার সুবিধা দিবে)
— Add to OneDrive
(আপনার গুগল প্লাসের ব্যাকআপ আপনার OneDrive একাউন্টে সংরক্ষণ করার সুবিধা দিবে)
— Add to Box
(আপনার গুগল প্লাসের ব্যাকআপ আপনার Box একাউন্টে সংরক্ষণ করার সুবিধা দিবে)

⦿ File type থেকে আপনার সুবিধা অনুযায়ী ফাইলের ধরণ নির্ধারণ করুন। .zip ফাইল সাধারণত Windows অপারেটিং সিস্টেমে কোন এ্যাপ ছাড়াই এক্সেস করা যায়। আর .tgz ফাইল ব্যবহার করতে হলে windows অপারেটিং সিস্টেমে আপনাকে 7-zip বা PeaZip এ্যাপের মত কোন এ্যাপ ব্যবহার করতে হবে।

⦿ Archive size থেকে আপনার সুবিধা অনুযায়ী আর্কাইভ সাইজ সিলেক্ট করুন। আপনি যদি স্বল্প প্যাকেজের নেট ব্যবহারকারী হয়ে থাকেন তাহলে Archive সাইজ থেকে 1GB বা 2GB সিলেক্ট করুন। আর যদি ব্যান্ডউইথ নিয়ে ঝামেলা না থাকে তাহলে 10GB অথবা 50GB-র যে কোন একটি সিলেক্ট করতে পারেন। তবে আমার পরামর্শ হিসেবে আমি বলবো আপনি আপনার Archive ফাইল গুলো 2GB করে আর্কাইভ করুন। এতে আপনার ফাইল ডাওনলোড এবং স্থানান্তর সুবিধা উভয়ই সহজ হবে।

⦿ এরপর ‘Create archive’ বাটনটিতে ক্লিক করুন। তবে আপনি যদি Delivery method সিস্টেমে Add to Dropbox, Add to OneDrive অথবা Add to Box সিলেক্ট করে থাকেন তাহলে সব শেষে ‘Link account and create archive’ বাটনে ক্লিক করে আপনার Dropbox, OneDrive বা Box একাউন্টের সাথে লিংক করে দিতে হবে। সেখানে প্রয়োজনীয় তথ্য দিয়ে সহজেই আপনি আপনার ব্যাকআপ ফাইলটি Dropbox, OneDrive বা Box একাউন্টে পেয়ে যাবেন।

 

 

এখন আপনাকে বেশ কিছুটা সময় অপেক্ষা করতে হবে। আপনার গুগল প্লাসের এক্টিভিটি এবং পোষ্টের সংখ্যার উপর ভিত্তি করে আপনার অপেক্ষার সময়ের দৈর্ঘ কম/বেশি হবে। ব্যাকআপ শেষে আপনাকে মেইলের মাধ্যমে আপনার ব্যাকআপ ডাওনলোড করার লিংক জানিয়ে দেয়া হবে।

 

 

 

 


তথ্যসূত্রঃ Google, Dustn.tv
৩৯০জন ১৯২জন
29 Shares

২৭টি মন্তব্য

মন্তব্য করুন

ফেইসবুকে সোনেলা ব্লগ

লেখকের সর্বশেষ মন্তব্য