স্মৃতিচারণ

খাদিজাতুল কুবরা ৩০ জুলাই ২০২০, বৃহস্পতিবার, ০৬:৩৯:৩৪অপরাহ্ন একান্ত অনুভূতি ১৫ মন্তব্য

ছোট্ট বেলায় ঢাকার নাখালপাড়া এলাকায় বাবা-মায়ের সাথে ভাড়া বাসায় থাকতাম আমরা।সেখানে আমার অনেক বন্ধু ছিলো।ডোনা,বিভা,ফুয়াদ আরও অনেকে যাদের নাম এখন আর মনে নেই। অদ্ভুত হলেও সত্যি ওদের  এখনও মাঝে মাঝে মনে পড়ে। আমরা রান্নাবাটিও বরফ পানি খেলতাম।

তারপর গ্রামে চলে এলাম,এখানেও স্কুলে সহপাঠী বন্ধু ছিলো অনেক। তাসলিমা, রোজিনা, মর্জিনা, নিলুফা মাসুদ, খোকন আরও অনেকে। যাদের সাথে প্রায় পনেরো বছর যোগাযোগ নেই। তবুও মাঝে মাঝে মনে পড়ে। কত খুনসুটি, হাসি আনন্দের স্মৃতি ওদের সাথে।

তারপর ঢাকায় কলেজ জীবনে দু’জন প্রাণের বন্ধু পেলাম। একজন নীলু, ওর বাড়ি যশোর। আরেক জন মুন্নি ওর বাড়ি মুন্সিগঞ্জ। একই বাড়িতে ভিন্ন ভিন্ন ফ্ল্যাটে থাকতাম আমরা। আমার জীবনের সোনালী অধ্যায় ওদের সাথে কাটিয়েছি।

সারা ঢাকা শহর ঘুরিয়ে দেখিয়েছে ওরা আমাকে।

ওদের সাথে সাভার স্মৃতিসৌধ দেখেছি। মিলেনিয়াম উদযাপন করেছি বাড়ির ছাদে। একসাথে মুভি দেখতাম। টিভিতে প্রথম সম্প্রচার হয়েছিল টাইটানিক মুভি, আমরা রাত জেগে দেখেছি। এরকম অসংখ্য স্মৃতি। দুঃখের বিষয় আমার প্রাণপ্রিয় দুই বন্ধু কোথায় আছে আমি জানি না। আমি চলে এসেছিলাম গ্রামে। ওরা বাসা বদলে অন্য কোথাও। তখন হাতে হাতে ফোন ছিলো না। এখনও ঢাকায় গেলে আমার দুচোখ মনের অজান্তেই ওদের খোঁজে।

এফ বি তে সার্চ করে খুৃঁজি প্রিয় বন্ধুদের।

এফ বি তে পাওয়া আমার অনেক বন্ধু আছে। যাদের  সাথে সামনাসামনি দেখা হয়নি তবুও কেউ কেউ  পরম মমতায় হৃদয়ের পাশে এসে বসে। না ছুঁয়ে -ও ছুঁয়ে থাকে। প্রিয় ছন্দা দিদি ভাই, বন্ধু মৌমিতা, আরজু মুক্তা আপু, বন্ধু উর্মি, বন্যা লিপি আপু, রিনা দিদি ভাই,বন্ধু শিল্পী দাস,রুপা পাল, জিসান ভাইয়া, হরিপদ দাদা, ছোটভাই কবি জামিল হাদী, ছোট ভাই শাকের নাজির, ছোট বোন নাইস, মৃন্ময়ী,রোজা,সিঁথি,  বন্ধু বেলাল উদ্দিন সবুজ, কবি পারিম শেখ, মনীষ দাদা বিশিষ্ট লেখক ফরিদ তালুকদার প্রমুখ আরও অনেকে।

এখন চট্টগ্রামে ও আমার প্রাণের বন্ধু অনেক। মনিরা সুমি, রোজী, আরও অনেকে। সবাইকে আমার অকৃত্রিম ভালোবাসা জানাই আজকের এই দিনে।

আমার কাছে বন্ধু মানে একটি খোলা আকাশ যাতে মন খুলে ডানামেলে ওড়া যায়…

#রুবি

১৮৭জন ৫৮জন
0 Shares

১৫টি মন্তব্য

মন্তব্য করুন

ফেইসবুকে সোনেলা ব্লগ