ফেসবুকে নিজের দুই সন্তানকে সাথে নিয়ে আত্মহত্যার হুমকী দিয়েছেন নরসিংদীর সংরক্ষিত নারী আসনের সাংসদ বুবলী। ইনি কিন্তু সেই বুবলী যিনি নিজের ডিগ্রী পরীক্ষায় পাশের জন্য অন্য আটজনকে প্রক্সি দিয়ে লিখিয়েছিলেন।

তার ধারনা, সব দোষ সাংবাদিকদের। সংবাদ মাধ্যমের কর্মীরাই এমন খবর প্রকাশ করে তার জীবনকে দুর্বিষহ করে তুলেছে। ফেসবুক স্ট্যাটাসে তিনি সাংবাদিকদের উদ্দেশ্য করে লিখেছেন-

সাংসদ বুবলীর সেই স্ট্যাটাস

” ব্যক্তিগত জীবনে চাওয়া পাওয়ার হিসেব রাখিনি। নরসিংদীবাসীকে ভালোবেসেছি। কিছু অপশক্তি পেছনে লেগেছে, কতকিছু ঘটনা দেশে ঘটে, এত লেখালেখি কেউ করে না। আপনারা এটা নিয়ে এমনভাবে লিখছেন যেন আমার জন্য ৫০ জীবন শেষ হয়ে গেছে। লুটপাট হয়েছে, সর্বনাশ হয়েছে অনেকের।

আমার যদি কিছু হয়… দুই বাচ্চা নিয়ে সুইসাইড করি খুশি হবেন তো আপনারা? ঠিক আছে আপনাদের খুশিই আমার খুশি। ভালো থাকুক আমার সাংবাদিক ভাইরা, আল্লাহ ভালো রাখুক আপনাদের।

আমার এ জীবনে পাওয়ার চাইতে মনের দুঃখে মরেছি অনেকবার, বারবার মরার চাইতে একবারে মরে গেলেই ভালো মনে করি।”

নৈতিকতা বিবর্জিত এমন কাজ করার জন্য তিনি সরকারদলীয় সংগঠন থেকে বহিস্কৃত হন। কিন্তু তার সন্তানের কি দোষ? তারাতো অনৈতিক কর্ম করেনি। তাহলে এমন কথা বলে বুবলী নিজের সাথে সন্তানদের জড়িয়ে আরও বড়ো রকমের নৈতিক স্থলনের শিকার হলেননা কি?

একজন সংসদ সদস্যের এমন গর্হিত কাজ কিছুতেই গ্রহনযোগ্য নয়। একজন মা হিসেবে যিনি নিজের সাথে তার সন্তানের মৃত্যু কামনা করেন আর যাই হোক তিনি দেশের কোন মঙ্গল চাইতে পারেননা। তিনি তার ভুল বুঝতে পারবেন এটাই কাম্য।

লেখার সূত্র এই লিংকে

২৮৮জন ৬২জন
38 Shares

২৫টি মন্তব্য

মন্তব্য করুন

ফেইসবুকে সোনেলা ব্লগ

লেখকের সর্বশেষ মন্তব্য