ফেসবুকীয় টেনশন

তৌহিদ ১২ নভেম্বর ২০২০, বৃহস্পতিবার, ০৩:৪১:৩৯অপরাহ্ন রম্য ২৮ মন্তব্য

কয়েকবছর আগেও ফেসবুক নিয়ে এত টেনশন ছিলোনা। Hi frndz, shuvo sokal, good ni8 এর সাথে একটা ছবি ব্যস দিন পার। নো টেনশন!

এলো Add me, Add me I am block, তুমি কি আমার বন্ধু হবে’ গ্রুপের যুগ। তখন সময় ছিলো ফ্রেন্ড রিকোয়েস্ট একসেপ্ট করা না করা নিয়ে হালকার উপর ঝাপসা টেনশন!

দুই তিন বছর পরে Angel’দের জামানা এলো। কেরিনা, জেরিনা, মেরিনারা সহ কত কত এঞ্জেল যে ফেক আইডি খুলে ছেলেদের দীর্ঘশ্বাসের কারন হতো সেকথা মনে করে শরমিন্দা হতে চাইনা। এটি ফেসবুকের ছুপা টেনশনের যুগ।

মেসেঞ্জারে মেয়ে আইডি দেখলেই Hi, হাই, হ্যালো, হ্যালোও… লিখে ফেসবুকে উঁকিঝুঁকি মেরে কেউ যখন দেখে you can’t reply the conversation সারাদিন সেই টেনশনে নাওয়া খাওয়া ভুলে রাত্রিতে আবার নতুন উদ্যমে মেসেঞ্জারে নক দেয়া শুরু করে। উহ! একটাও কি ফান্দে পড়বে না! এ বড্ড বাজে টেনশন।

ইদানিং লাইকের টেনশন চলছে। পোষ্ট রিচ হচ্ছেনা সেই টেনশনে অনেকেই ঘন্টায় ঘন্টায় ছবি আর স্ট্যাটু প্রসব করে। খুব ট্যাশ ভাত খেতে খেতে বরবটির বদলে মরিচ চিবিয়ে তাকিয়ে থাকে আর লাইক কাউন্ট করে। উহু কি যে টেনশনের ঝাল!

কেউ কেউ টেনশনে পোষ্ট দেয় বন্ধু ছাঁটাই চলছে। আমি এসব পোষ্ট দেখলেই সেখানে টুক করে একটা মন্তব্য করি। টেনশনে হাত পা ঠান্ডা হয়ে আসে! যদি বন্ধু তালিকা থেকে বাদ দিয়ে দেয় আমার কি হবে! কি নিয়ে বাঁচবো! বাজে টেনশনে কাজেকামে মনোযোগ দিতে পারিনা!

টেনশনের যেনো শেষ নেই। এসব টেনশন থেকে মুক্ত হতে কিছুটা রিলাক্সের জন্য ফেসবুক আইকন (পড়ুন বিনোদনদাতা) দের পেজে ঢুঁ মারতে যাই ফলোয়ারদের মন্তব্য পড়তে। সেখানেও টেনশন! লজ্জাশরমের বালাই খেয়ে লুকিয়ে লুকিয়ে মন্তব্যগুলো পড়ি আর হাসি, কিন্তু ফেসবুকে কাউকে বলিনা। বলেনতো কত্ত টেনশন!

ও হ্যা, কথায় কথায় মনে পড়ে গেলো পরীমনি এই ঠান্ডায় মিনি সুইমিং কস্টিউম পড়ে ফেসবুকে হাফ ছবি দিয়েছে। তার ফ্যানদের টেনশন বাকী হাফ ছবি গেলো কই! পরীমনির প্রিয় কুকুরটাও নাকি ঠান্ডায় জ্বর বাঁধিয়ে বসেছে। এটা নিয়েও টেনশন! মিনি কস্টিউমে পানিতে ভিজে পরীমনির জ্বর না এসে কুকুরের জ্বর এলো কেন! টেনশনের ব্যাপারনা বলেন?

এদিকে দুইদিন থেকে আমি নিজেও খুব টেনশনে আছি। কারনটা বলতে শরম লাগছে আবার না বললে পেটের মধ্য কেমন যেন গুড়গুড় করছে। বলেই ফেলি!

গতরাতে স্বপ্নে দেখেছি ডোনাল্ড ট্রাম্পের সাথে বিচ্ছেদের পরে মেলানিয়া ট্রাম্প আবার বিয়ের পিঁড়িতে বসেছেন। সেখানে তার একপাশে আমি অন্যপাশে জাস্টিন ট্রুডো। ম্যারেজ রেজিস্টার সই করার জন্য কলম বাড়িয়ে দিচ্ছেন। মেলানিয়া আমার দিকে মুচকি হেসে চোখ টিপে দিয়েছে আর তাই দেখে ট্রুডো হোয়াট দ্য হেল বলে আমার আঙ্গুল টেনে ধরেছে। টেনশনে শুধু ঘেমেছি!

ঘুম থেকে উঠেই শুনি বউ বলছে- রাত-বিরাতে কলম কলম বলে বিড়বিড় করে আমি নাকি তার আঙ্গুল চেপে ধরছিলাম। সে কি সব শুনে ফেলেছে কিনা সেই টেনশনে আজ সকালের নাস্তাটাও খেতে পারিনি। সারাটাদিন টেনশন বুঝলেন, বড্ড টেনশন!

টেনশন কাটাতে এখনও ফেসবুকিং করছি আর ধুমছে লাইক বাটন চাপছি। এর মাঝে চোখে পড়লো বুধগ্রহে তারেক মনোয়ারের সাথে এলিয়েনের ঘাড়ে হাত দিয়ে তোলা ছবিটা। এলিয়েনটা দেখতে অবিকল কিম উন জং এর মতো। টেনশনরে ভাই! যদি বোম মেরে দেয়! ফেসবুকে তারে নিয়ে যে কত ট্রল করছি!

একজন আবার ওবায়দুল কাদের ভাইয়ের স্যুটের বদলে জিন্স প্যান্ট পড়ার ছবি শেয়ার দিয়েছে। অন্যদিকে রিজভী ভাইয়ের বাল্যকালে তোলা হাস্যজ্জল সাদাকালো ছবিতে দেখতে পেলাম এখনকার মত তখনো তিনি কাগজ হাতে কি যেন পড়ছেন! টেনশনে পড়ে গেলাম, এগ্লা কি এডিট করা যায়?

ফেসবুকে এসব দেখতে দেখতে উত্তেজনায় চেয়ারে বসা আমি দোল খাচ্ছিতো হঠাৎ চেয়ারের একদিকে কোথায় যেন মুট করে শব্দ হলো। বউয়ের শখের রকিং চেয়ার, ভাঙলে আজ খবর আছে। উফ্! এখনো ফেসবুকিং এ আগের মতই বড্ড টেনশন!!!

২১১জন ১জন
0 Shares

২৮টি মন্তব্য

মন্তব্য করুন

ফেইসবুকে সোনেলা ব্লগ

লেখকের সর্বশেষ মন্তব্য