ফেরারি মেঘের রুটম্যাপ

খাদিজাতুল কুবরা ৭ অক্টোবর ২০২২, শুক্রবার, ০৪:০০:৫০অপরাহ্ন কবিতা ৮ মন্তব্য

আমি সেই টুকরো বেপরোয়া মেঘ, যে রোদের স্থলাভিষিক্ত হই কেবল।

আমার নিজস্ব দেশ নেই, নেই আকাশ!

আমারই জন্য অতিবৃষ্টি-অনাবৃষ্টির দ্বান্দ্বিকতার সূত্রপাত।

আমিই অভাগার অভিশাপ, ভাগ্যশীলার পরিতাপ!

সত্যি বলছি আমি মেঘ হতে চাইনি,

চেয়েছিলাম হতে শীতের সকালে রুপোলী রোদ!

যার মিষ্টতা গায়ে মেখে প্রফুল্ল হবে আবাল বৃদ্ধ বনিতা!

নিদারুণ সত্যি হল, আমি শুধু এক টুকরো মেঘ!

আমিই এ পৃথিবীর চিরন্তন নিনাদ!

 

নিশ্চুপ কান্নার প্রতিবাদে এসেছিল সে লং মার্চে,

একদল কুখ্যাত সৈনিক রেখেছিল রাইফেল তাক করে,

মুষড়ে পড়েছিল সুরের রাগ-রাগিনী!

ওরা জানেনা যুদ্ধের দামামা শুনে বীর পালায়না।

উত্তাল সমুদ্রে হ্যারিকেন জাগুক,

বয়ে যাক উপর্যুপরি অতৃপ্তির ঝড় জলোচ্ছ্বাস,

কিন্তু নাবিক ভোলেনা দূরগামী জাহাজের রুটম্যাপ।

তোমাদের কি লাভ বলো?

জোর করে চাপিয়ে দিয়ে ‘প্ল্যাটোনিক লাভ’!

দ্যাখো কবুতরগুলো কেমন শান্তির প্রতীক!

ওরা একসাথে সুখের সারমেয় হয়।

 

আগে কেন জানতে পারিনি?

ঘনবন, পাহাড় পোষে মন।

সমুদ্রে নেমে জেনেছি সে-ও ছিলো হৃদয়ের কাছাকাছি।

বুকের বাঁ পাশে এত যে বিরহ-বেদনার ছবি,

আঁকা চিত্রটি ভুল কি ?

কার বিরহে বুকের অরন্যে কচি হরিণের ছুটাছুটি; হুহু হুংকার ছাড়ে রোজ, কোন মাংসাশী ?

সন্ত্রস্ত দেহে জ্বলে খড়ি কাঠ, সেঁকে খায় নিন্দুক।

তাতে কি আজ আমি নির্ভয়া,

সব বাধা পেরিয়ে দাঁড়িয়েছি সৈকতে,

ডুবো সন্তরণে তীর ছুঁতে চায় প্রিয়সখা,

পেছনে টানছে বিষন্ন শহরের মেঘ বলাকা!

আমি যে এক ফেরার, তারা কেউ জানেনা।

২৭৭জন ১৩০জন
0 Shares

৮টি মন্তব্য

মন্তব্য করুন

লেখকের সর্বশেষ মন্তব্য

ফেইসবুকে সোনেলা ব্লগ