লিংকে ক্লিক করে ভিডিওটি দেখুন আগে। 
এই ভিডিওতে একটি ওয়াজ মাহফিলে একজন বক্তা তার ওয়াজে বলছেন যে, পবিত্র কোরআন এর সুরা আম্বিয়ার ৮২ নাম্বার আয়াত পর্যালোচনা করে ফেইসবুক আবিষ্কৃত হয়েছে। ওনার কথা আনুযায়ী তো ফেইসবুক ব্যবহার করা ছওয়াবের কাজ। যে যত বেশি ফেইসবুক ব্যবহার করবেন, তিনি তত বেশি ছওয়াব অর্জন করবেন। এই ওয়াজে আরো আছে, কম্পিউটার, মোবাইল, মাইক এবং অন্যান্য অনেক কিছুই পবিত্র কোরআন কে বিশ্লেষণ করে আবিষ্কৃত হয়েছে।
পবিত্র কোরআনের সমালোচনা করার মত স্পর্ধা আমার নেই। আমি নিজেই একজন মুসলমান। তবে দেশের বিভিন্ন স্থানে ওয়াজ মাহফিলে বক্তব্য দেয়ার জন্য যে সম মাওলানা দেশ চষে বেড়ান, তাদের কাছে কিছু প্রশ্ন করাই যায়।
পবিত্র কোরআন এর মাধ্যমে অমুসলিমগন এসব আবিষ্কার করে ফেলেন, আপনারা করেনটা কি? একেকজন তো পবিত্র কোরআনে সমস্ত কিছু মুখস্ত করে আল্লামা, মাওলানা হয়েছেন, সমস্ত কিছু বুঝে গিয়েছেন, আপনারা কেন কোনকিছু আবিষ্কার করতে পারেন না? আপনাদের এইসব আবিষ্কারের ওয়াজ প্রমাণ করে যে আপনারা আসলে কোরআন এর অর্থই বুঝেন না, আপনাদের চেয়ে ভাল বুঝতে পারেন অমুসলিমগন। যত আবিষ্কার আছে জগতে সব কোরআন বিশ্লেষণ করে আবিষ্কৃত হলে আপনারা তাইলে কি বুঝেন কোরআনের?

প্রায়ই এই সব বক্তা গন বলে থাকেন, অমুক অমুক আবিষ্কার কোরআনের মধ্যেই আছে। অমুক বিখ্যাত ব্যক্তি ইসলাম গ্রহন করেছেন, অতএব ইসলাম সেরা ধর্ম। এনাদের ইমানে সমস্যা আছে আসলে। পবিত্র কোরআন, হাদিস, আল্লাহ এবং রাসুলে বিশ্বাস এবং আস্থা থাকলে বর্তমানে কোন নদু ছদু ইসলাম গ্রহন করেছে এই উদাহরন দিয়ে মুসলিমদের উজ্জীবিত করতে হবে কেন? মুসলিমদের উজ্জীবিত করতে কি এই সব বক্তাদের কাছে পবিত্র কোরআন, হাদিস, আল্লাহ এবং রাসুল যথেষ্ঠ নন? নাকি প্রথম চন্দ্রে অবতরণকারী পবিত্র কোরআন, হাদিস, আল্লাহ এবং রাসুল এর চেয়ে বড় হয়ে গিয়েছেন? এনাদের ওয়াজের মাধ্যমে এটিও প্রমাণ করে দিচ্ছেন যে বর্তমানে মুসলমানদের জ্ঞান অমুসলমানদের চেয়ে কম।

অবশ্য এই ধরনের লেখা লিখে কি হবে? বাংলাদেশের মুসলমানরা এই সব মাওলানাদের কথা এতই বিশ্বাস করেন যে, এদের কোন কোন কথা যদি পবিত্র কোরআন, হাদিস এর বিপক্ষে যায়ও তবুও মুসলমানরা এনাদের কথাই বিশ্বাস করবেন।

১১২৫জন ১১২৪জন
0 Shares

২৫টি মন্তব্য

মন্তব্য করুন

লেখকের সর্বশেষ মন্তব্য

ফেইসবুকে সোনেলা ব্লগ