আসুন আজ রাজকন্যার গল্প শুনি॥

রাজকন্যার জন্ম বছরে ভারত বিশ্বকাপ নিলো। অথচ তা নেবার কথা নয়! এমন সময় মেয়ে, রাজার মনে ভীষন আনন্দ।
এদিকে রাজ্যের বিস্ময় নিয়ে রাজকন্যা বড় হতে থাকে। সে যেমনটা ভাবে আদতে দ্যাখে সব উল্টো। ক্যাকটাস, ম্যানগ্রোভের মতো চারপাশের কাঁটাযুক্ত ছোবল। রাজকন্যা অল্পদিনেই ম্যানগ্রোভ পথে ক্ষতবিক্ষত!
একদিন রাজকন্যা অন্যরাজ্যে চলে গেলো। নাহ্ সেখানেও শান্তি, স্বস্তি কোনটাই নেই। তাঁর ভাললাগে মুক্ত আকাশ, উড়ন্ত পাখি, গোধুলী সন্ধ্যা, সিক্ত শিশির সকাল। কোনটাই হয় না, হতে দেয় না।
তবুও সে রাজ্যের মালিক। সে ভাবে তাঁকে ঠিক মালিক বলা যায় না, সে আসলে পোষ্যমালিক। তাহলে তাঁর নিজের কি?
খুঁজতেই থাকে,,,,,
একদিন দেখা—-
সেও রাজকন্যার মতোই। দীর্ঘ পথ হেঁটে ক্ষতবিক্ষত, এবরো- থেবরো।
-তোমাকে বড্ড চেনা লাগে গো?
-আমারও।
-তোমার কি অনেক কষ্ট?
-কষ্ট নয় ব্যাথা!
তাহলে ব্যাথাদের কলমের ডগায় নাও। জন্ম দাও অজস্র ব্যাথার। তাদের নামকরন হোক ‘কবিতা’। আর তুমি হও তাদের মালিক। পোষ্য নয় কিন্তু?
সেই থেকে রাজকন্যা কবি। আর তাঁর বন্ধু ব্যাথা পাঠক। দুজনে কতোও কথা! যেখানে অবশেষ বলে কিছু নেই,,,,
ব্যথা পাঠকের বন্ধুর আজ জন্মদিন! তাঁর আজ ১৮ বছর পূর্ণ হলো।
”জীবন নিজের যদি চাও কুঁড়িয়ে নাও, যদি চাও ফেলে দাও”!!
আজ আকাশ ঝলমল করছে রোদে। বন্ধু পথ যতো দুর হোক না কেন সাহস রেখো! সাথেই আছি, থাকবো!!

 

২৫৭জন ৮৫জন
0 Shares

১৪টি মন্তব্য

মন্তব্য করুন

ফেইসবুকে সোনেলা ব্লগ

লেখকের সর্বশেষ মন্তব্য