প্রিয় একুশ

রোকসানা খন্দকার রুকু ৩১ অক্টোবর ২০২১, রবিবার, ০৩:০৬:১৯অপরাহ্ন কবিতা ১৫ মন্তব্য

প্রিয় একুশ সাল,

এবার শান্তি হলো তোমার?

সেই বিশে খালি করতে শুরু করেছো আমার চারপাশ,

প্রিয় বন্ধু, প্রিয় আত্নীয়, প্রিয় পরশী, জানা-অজানা সবকিছু কেড়ে কেড়ে।

বিশ্বময় তোমার লালা ঝড়ে সবাই নতজানু তবুও যেন তোমার শান্তি নেই।

 

এক কোণে ছিলাম আমি আমার ‘ বুনোমাধব’ কে নিয়ে সুখের বসতে;

একান্তে লুকিয়ে আমার হৃদস্পন্দনে; শেষ আশ্রয়ে।

সেখানেও ড্রাগন চোখ পড়লো তোমার,

ছিনিয়ে নিলে আমার একান্ত প্রেমকে।

ভাবলেও না ভালোবাসা; মায়া; প্রেম হারিয়ে কেউ কি বাঁচে?

 

আমার সম্বল এখন শুধুই চোখের জল আর অসীম শূন্য বুক।

জানি তোমার সাথে আমি পারবো না

তবুও আমার আর্তনাদে ভরা চোখের জল,

শূন্য প্রতিবাদে উডিয়ে ভালোবাসার মাস্তুল,

যুদ্ধ ঘোষনা হলো তোমার সাথে,

তুমি এসো তোমার হিংস্র খরগো নিয়ে,দাঁড়াও চরম আক্রোশে, আমি প্রস্তুত।

 

আহত করো আমায়, তোমার সমস্ত শক্তি দিয়ে।

ক্ষতবিক্ষত করো, পোড়া হৃদয় ঝাঁঝরা করো, রক্ত ফিনকি দিয়ে ছিটকে পড়ুক, পচনে-পুঁজে গলগলে হোক সর্বাঙ্গ, অজস্র হিংস্র পোকারা কিলবিল করুক চামড়ার নিচে।

আমি তবুও বুক পেতে বাহুবালী হয়ে মুচকি হাসবো।

 

তা দেখে যদি তুমি আরও অগ্নিশর্মা হও,

আরও ক্ষতবিক্ষত করতে সোৎসাহে ঝাঁপিয়ে পড়ো,

শরীরের চামডা তুলে নাও, হয়তো তবুও আঁশ মিটবে না।

আমি তখনো কিছুই বলবো না তোমায়,

শুধু কঙ্কালসার দেহে তোমার আঘাত নিতে দাঁড়িয়েই থাকবো।

 

তুমি জানোই না,আমার এই বুকে কতো জ্বালা ধারণ করেও আজ আমি দাঁড়িয়ে।

যদি চিডে দেখাতে পারতাম তুমি ভয়ে সিটকে যেতে,

এ পথে আর কোনদিন আসতে না।

একসময় তুমি কঙ্কালে খোদাই দেখতে,

হু হু করে বইছে উদগিরীত কষ্টের লাল লাভা।

আৎকে উঠে তুমি বলতে-

বলতো এতো জ্বালা নিয়ে তুমি কেমন করে বাঁচো।

 

আকুতি করলাম ‘একুশ’ সমস্ত কেড়ে নাও,

শুধু ভালোবাসার মানুষটাকে ছাড়া,

জানোনা ভালোবাসা কেড়ে নিলে মানুষ পাথরসম হয়।

তবুও প্রিয় একুশ,

তোমার সাথে আমার রাগ নেই,

কারন তুমি স্বাধ মিটিয়ে সব কেড়ে নিলে বলেই আজ জন্ম হলো কলম হাতে এক কবির!

ছবি- নেটের

১৫৬জন ৫০জন
0 Shares

১৫টি মন্তব্য

মন্তব্য করুন

ফেইসবুকে সোনেলা ব্লগ

লেখকের সর্বশেষ মন্তব্য