প্রহসন ই বৈকি!

মাহামুদ ৭ ফেব্রুয়ারী ২০১৫, শনিবার, ১২:১৬:৪৩অপরাহ্ন বিবিধ ১২ মন্তব্য

ফেব্রুয়ারী আসলেই আমাদের মাঝে চেতনার উদয় হয়,যদিও সারাটা বছর আমরা ঘুমিয়েই কাটাই।ফেব্রুয়ারীতে আমরা মহান আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস পালন করি।আর ফেব্রুয়ারীতে সবার মাঝে ভাষা প্রীতি প্রবল ভাবে জাগ্রত হয় সবাই সর্বস্তরে বাংলা দাবী করে। চারদিকে বাংলা আর বাংলা! শুধুই কি আমজনতা? আমাদের মাননীয় প্রধানমন্ত্রী, জননেত্রী, দেশমাতা,সমুদ্র জয়ের নেত্রী,(আরো কতো পদবী যে চামচারা দুই নেত্রীকে লাগাবে স্বয়ং সৃষ্টিকর্তাই ভালো জানেন) শেখ হাসিনা জাতিসংঘের দাপ্তরিক ভাষা হিসেবে বাংলার অন্তর্ভুক্তির জন্য আবেদন করেছিলেন। দেশবাসী ভাবলো বাহ বাহ! বেশ খাসা খবর তো। কিন্তু অতীব দুঃখ নিয়ে জানাচ্ছি আমাদের নিজেদেরই প্রশাসনিক ভাষা ইংরেজী!!! অথচ আমরা উঠে পরে লেগেছিলাম জাতিসংঘের দাপ্তরিক ভাষা বাংলা করতে হব, মানতে হবে এই দাবীতে। আমাদের আরেকটি বৈপরিত্য দেখাই, গত বৎসর আমাদের উচ্চ আদালত নির্দেশ জারি করে সমস্ত বিলবোর্ডের ভাষা হতে হবে সহীহ বাংলা। যারা কৌতুহল নিয়ে জানতে চান উচ্চ আদালত কি ভাষায় এই রায় দিয়েছে? কি ভাষায় আবার ইংরেজীতে।
আমি প্রতেক ফেব্রুয়ারীত অধীর অপেক্ষায় থাকি এইবার হ্যা এইবার হয়তো আমরা সর্বস্তরে বাংলা ছড়িয়ে দিতে পারবো। কিন্তু হিপোক্রেট প্রশাসন আর গোল্ডফিশ মেমরিধারি জনগণ অর্থাৎ আমরা ফেব্রুয়ারী আসলেই হাহাকার লাগাই আর ফেব্রুয়ারী গেলেই যাতা। অথচ এই লক্ষে সুস্পষ্ট কোন পদক্ষেপ কেউ নেয়না,ভাবেনা।

২৯৯জন ২৯৯জন
0 Shares

১২টি মন্তব্য

মন্তব্য করুন

লেখকের সর্বশেষ মন্তব্য

ফেইসবুকে সোনেলা ব্লগ