প্রণয়ারতি

অনন্য অর্ণব ৭ অক্টোবর ২০২১, বৃহস্পতিবার, ০৫:৩৩:৪১অপরাহ্ন কবিতা ১৭ মন্তব্য

কোথায় যেন দেখেছি তোমাকে আমি
হাজার বছরের পুরনো বেহালার তার
অথচ নিত্য নতুন সুরেতে বাজো 
নতুন রূপেতে গড়ো যে অলংকার।

চাহনি তোমার জলজ ক্লান্তি ঘেরা 
অলীক স্বপ্নে সাজিয়ে প্রমোদতরী 
নিত্য সেথায় করেছি যাওয়া আসা
দারুন ব্যথায় বিভোর বিভাবরী। 

প্রথম যেদিন দেখেছি সে রূপ সুধা
আপনি বলিলে বন্ধু তব হে গুণী 
কি গান রচিলে মম মঞ্জিলে দানি
সুরখানি তার দাওনা বাজিয়ে শুনি।

বলেছি সেদিন চোখের ভাষা কি বলো 
মনের আকুতি প্রোত্থিত করিতে পারে ?
যত ব্যথা যত বেদনা ঢালিতে পারো 
আপনি রাঙাবো সে দান অলঙ্কারে ।

হাসিয়া কহিলে বন্ধু ও মোর সাথী 
তোমার পৃথিবী আলোয় আলোয় ভরা 
আমার ভরা পূর্ণিমার এই চাঁদের 
জোছনাতে আজ তপ্ত মরুর খরা ।

কি সুর তুমি বাজাবে এ মোর বীণায় 
রাগিনী যে তার নিঃস্ব বাহুতে বাঁধা
আকুল ব্যথার মর্মে গাঁথা যে বেণী 
তার সে মধুর বেদনে বাধিত রাধা ।

সোহাগে যে তার জাগেনি আমার প্রাণ 
সুরের মাদুলী পরালাম যার গলে
আমার সকলি দিয়েছি উজাড় করে
অবহেলা সে যে করেছে সুকৌশলে ।

ভীষণ প্রেমের ঝড়েতে যখন একা 
চোখের জলেতে রজনী করেছি ভোর 
বন্ধু ও মোর প্রাণের প্রণতি সখা 
আসেনি সেদিন কেউতো খোলেনি দোর।

আজকে আমার ঝড় যে গিয়েছে থেমে 
অশ্রু নামের ঝর্ণা জলেতে ভাসি
কি গান শোনাবো তোমার বাহুতে বেঁধে 
আমার করুণ বেদন বিহাগী হাসি ।

বলেছি বন্ধু তোমারি অশ্রু জলে 
রচিবো হাজার কাব্য কথার শ্লোক 
পরের জন্মে নাহয় তোমাকে পাবো 
এপারে তোমার ব্যথার সমাধি হোক ।

ফটো : Afreen Momee

১৯৭জন ২৬জন
0 Shares

১৭টি মন্তব্য

মন্তব্য করুন

ফেইসবুকে সোনেলা ব্লগ

লেখকের সর্বশেষ মন্তব্য