পৌষ সংক্রান্তি উৎসব- পোয়াতি পৌষ

ত্রিস্তান ১৫ জানুয়ারী ২০২০, বুধবার, ০১:৪৫:২৮অপরাহ্ন কবিতা ২২ মন্তব্য

হিমালয়ের কার্ণিশ ঘেঁষে দক্ষিণাত্যে ঝুলে থাকা জন্মভূমি মোর,
নবান্নের ঘ্রাণ ফুরাতেই এখানে নেমে আসে কুহেলি সকাল-
শীতের শুষ্কতায় আচ্ছন্ন আরো একবার এই অববাহিকায়-
আমরা দেখেছি আরো একটি “পোয়াতি-পৌষ” ।।

কোন এক কাল্পনিক মুসাফির গাজী-কালু’র হাঁক শুনে
দক্ষিনাত্যের কৃষকের ঘুম ভাঙ্গে কাকডাকা ভোরে-
শুরু হয় কৃষাণীর রসুই ঘরের ঝনঝন বাসনের সুরের আশীষ,
সেও নাকি এ বছর ন’মাসের গর্ভবতী-
এ যেন আরেকটি পোয়াতি’র পৌষ।।

পোয়াতি বধূ উঠে; সেই ভোরে শুরু হয়, ঢেঁকি ঘরে ধান ভানা তার,
কৃষাণ খেজুর রস পেড়ে নিয়ে এসে বলে –
“বিবি- খানিক ফিরনি যদি পারো রাঁধিবার”-
সুগন্ধি কালিজিরা চালে,
‘যা শীত, খুব আয়েশ হতো বুঝি- এই পৌষী- সকালে ।।

শ্বশুর তাহার উঠে, বলে- “কই গেলে গো বউ মা-
অজুর পানিটা- দিয়ে যাওনা এবার”,
বৃদ্ধা শ্বাশুড়ি বলে “জায়নামাজ টা কই গেলো যে.. পাই না খুঁজে আর”
এদিকে ননদী তার ঢেঁকি ঘরে ডাকে বার বার,
পোয়াতি কৃষাণি- যৌবন খানি যে তার পুড়ে অঙ্গার ।।

দু’বছরের ময়নার ও যে ভেঙে গেছে ঘুম আজ ভোরে-
দুধের শিশু যে সে, একটুখানি দুধ খাইয়ে দিতে হবে তারে,
অঙ্গেতে আঁচলখানি কোন মতে জড়িয়ে কৃষাণি-
পৌষের শীত ভুলে টেনে যায় কৃষকের সংসারের ঘানি ।।

এই পৌষ পার্বণে যে গৃহিণী হয়েছে পোয়াতি –
পৌষের শীত কি গো বোঝে আদৌ বেদনা তার আছে কতখানি?
বুঝবে কি সে তো হয়নি কখনো আর আশু গর্ভবতী,
কল্পনার আঁচড়ে তাই-
এবারের পৌষের নামটাই রেখেছি “পোয়াতি” ।।

৪৯০জন ৬৯জন
34 Shares

২২টি মন্তব্য

মন্তব্য করুন

ফেইসবুকে সোনেলা ব্লগ

লেখকের সর্বশেষ মন্তব্য

সাম্প্রতিক মন্তব্যসমূহ