মনের দুকখে রাস্তায় রাস্তায় হাটিতেছিলাম। অবশেষে এক ছিঃনেমা হলের সামনে আইসা থমকাইলাম! সাকিব খানের ছবির এক বিশাল পোষ্টার টাঙ্গাইয়া রাখিয়াছে। নামের আগে তাহার ক্যাবলা মার্কা চেহারা নজর বন্দি হইলো। সাথে কাবিলা, অপু, ওমরসানি আর অমিত হাসান! ছিঃনেমার নাম ” রাজা “।

বহুকাল পর হল ছবি দর্শন করিবার খায়েশ মনে জাগিলো! ব্ল্যাক টিকিট হাতে এক বিড়িখোর আসিয়া কহিলো ” মামা একটা টিকিট আছে লইয়া যান, সামাজিক ছবি দেইখ্যা ফেলান! মনের দুকখো ভুলিবার নিমিত্তে বেশ কিছু টাকা খর্ছা করিয়া হলের ভিতরে এন্ট্রি দিয়াছিলাম|

যাইয়া দেখি অভিনয় শুরু হইয়া গেছে! হল ভর্তি চেয়ার মানুষ খুবই স্বল্প! সাকিব খানের ছবির বড়ই আকাল যাইতেছে! বেচারা বইসা বইসা অভিনয় করিয়া হাতির বাচ্চার মতো হইতেছে দিন দিন!

সামাজিক বলিয়া ভিতরে ঢুকছিলাম! যাইয়া দেখি উল্টা! এক হট বালিকা, তারচেয়েও হট কাপড় পড়িয়া কোমর দুলিইয়্যা নৃত্য করিতেছে! তাহার পশ্চাৎদেশ এতই চওড়া যে বিআরটিসির দুইটা সিট তাহার জন্য একাই যথেষ্ঠ!

ছবি ভর্তি বিনোদন! বলিয়া শ্যাষ করিবা সম্ভব নহে আমার মতো অলসের জইন্য।
মূল থিমটা কইতাছি!

সাকিব খান ছবির নাম অনুযায়ী রাজা, আর অপু ছবির নাম অনুযায়ী রানী, ওমরসানী তার মদন টাইপ ভাই! আর অমিত হাসান হইলো গিয়া ভিলেইন্যা।

তাহাদের দীর্ঘ দুই ঘন্টার সার্কাস জুড়িয়া একটা বিষয় শিখাইলো এবং দেখাইলো যে দালালের মাধ্যমে বিদেশ ভ্রমন করিবার স্বপ্ন দেখা আর গভীর রজনীতে বাঁশ খাওয়া একই কথা!

সাকিব খান অমিত হাসান কর্তৃক ধোঁকা খাইছে! আমেরিকা পাঠাইবো কইয়া দশজন লোকের ব্যবস্থা করিতে বলে! সাকিব ওরুপে রাজা তাহার ব্যবস্থা করিতে সক্ষম হৈল। ৮০ লক্ষ টাকা দিয়া দশজন লোক আমেরিকা পাঠাবে ভাবা যায়! অমিত হাসান এক ভন্ড বাবা তাহার ডায়লগ হইলো ” ইয়া বাবা ” বাচন ভঙ্গি দেখিয়া মনে হইবো দীর্ঘদিন যাবৎ কষ্টকাঠিন্য রোগে ভুগিতেছে!

আমেরিকা যাইতে না পারিয়া অপু ওরুপে রানী সাকিবের উপ্রে চটিয়া যায়! প্রতিশোধ নিবে বলিয়া অমিত হাসানের দলে যোগ দান করিয়া ফেলে। ( মূর্খ বালিকা :@ ) সুযোগ পাইয়া অমিত ওরুপে “ইয়া বাবা ” রানীরে ছোট জামা কাপড় পরাইয়া নিজের ধান্ধাবাজি শুরু করিয়া দিলো! আবার একই সাথে তাহার বাড়ন্ত যৌবনে হাবুডুবু খাইলো! মনে মনে তাহারে বিয়া করিবার স্বপ্ন দেখিয়া রাখিলো।

এইবারের টার্গেট গুলসানের এক বখে যাওয়া বালক! যতবারই তাহারে দেখাইলো হাতে একটা মদের বতল থাকেই! আজব ক্যেরেক্টার! গুলসান ২ এ তাহার একটা ডুফ্লেক্স বাড়ি আছে ! ইয়া বাবার সাথে তাহার কনট্রাক হইলো তিন কোটি টাকা দিবে বিনিময়ে সে অপু ওরুফে রানীরে বিয়া করিবার সার্টিফিকেট পাইবে! :p

ছোট পোষাকের রানীরে দেখিয়া হলের দর্শক যেই চিৎকার দিয়াছিলো তখন বুঝিয়াছিলাম এই হ্লার পোর মনের ভিতরে বাসর ঘরের সিন শুরু হইয়া গেছে!

এই দিকে হিরো রাজা, রানীর ভালোবাসা! রাজা রাজ বাঁশ খাইয়া তো মাইন্ধ্যা চিপায় ফাইস্যা গেছে! রানী রাজারে দেখতে পারে না! সে মরে বিরহের আগুনে! ;(

রাজার ভাই মদন ওমরসানী জনগনের হাতে একটা রাম ধোলাই খাইলো রক্তের সম্পর্কের দোষে! অবশেষে এলাকার চেয়ারম্যান আইয়্যা জনগনরে ঠান্ডা করে।

মদন ওমরসানী হাসপাতালে বইয়্যা বইয়্যা কান্দে। ছাব্বিশ হাজার টাকা বিল হইছে ক্যামতে দিবে! এক টাকাও তার কাছে নাইক্যা! অবশেষে রাজা তারে ফোন দিয়া ঘটনা যাইনা সুপার ম্যান গতিতে আইয়্যা পড়ছে। আইসা ডাক্তারের বিল না দিয়াই তারে দাড়ি মোছ্ লাগাইয়া ডাক্তারের বলদ বানাইয়া ভাগছে!! 😀

অবশেষে সে প্রতিশোধ নিবে! নিলো বাংলা ছবির প্রতিশোধ পর্ব গুদামঘর ছাড়া হয় না! সেই গুদামঘরে অমিত হাসান অপু বিশ্বাস ওরুপে রানীকে লুটিত রানীতে পরিণত করিবার চেষ্টা করিছিলো! দর্শকের দর্ষণ পর্ব যে এত ভালো লাগে তাহা হাতে নাতে প্রমান পাইলাম! তয় সাকিব খানের এন্ট্রি হওয়ায় পাব্লিক চুপসায়া গেল! সাকিব কামরুখার পীর সাজিয়া আসিয়াছে!

অমিতরে পুসলাইয়া পাসলায়া অপুর জুতা দিয়া মালিশ করিলো! সেইরাম ডলা সহ্য করছে অমিত! কিন্তু মালিশ করিতে করিতে তাহার আলগা মুছ খশিয়া পড়ে! পরে দুইপক্ষ মারামারি চলিলো! বাংলা ছবির নিয়ম অনুযায়ী পুলিশ শেষে ক্যামতে জানি খবর পাইয়া যায়! এইখানেও ব্যতিক্রম হয় নাইক্যা! শেষ সময়ে এন্ট্রি দিয়া খরচাপাতি আর বাড়াইতে দেয় নাই! অবলা ডাম, বাক্স, আয়না ভাইঙ্গা কি ফয়দা!!

অবশেষে সবকিছু ঠিকঠাক! তাহারা সুখে শান্তিতে বসবাস করিতে লাগিলো।

বাংলা ছবি দেখলে কখনো টাকা লস হয় না :p পেলাস মন খারাপ থাকে না।

১৭৭জন ১৭৬জন
0 Shares

২৫টি মন্তব্য

মন্তব্য করুন

ফেইসবুকে সোনেলা ব্লগ

লেখকের সর্বশেষ মন্তব্য