পুণ্যতোয়া

সৌবর্ণ বাঁধন ১১ জুলাই ২০২২, সোমবার, ১১:২৮:৫৬অপরাহ্ন কবিতা ৮ মন্তব্য

ভালোবাসা ঝরা পাতা অঘ্রাণে ঝরে যায়,
ইতিউতি ফড়িঙেরা উড়ায় পুরোটা দিন
শৌখিন ঘুড়ি,
দিন শেষে ল্যাম্পপোস্টে নিকোটিন ছাই হয়,
বসে থাকে রাজপথ নিঃস্ব একাকী,
অথচ আরব্য রজনী তখনো অনেক বাকি!  
সহস্র রাত জুড়ে ফুটে থাকে যে ক্যামেলিয়া,
হয়ত তুমি সেই হারানো অফেলিয়া!
ভালোবাসা হেমিংওয়ে ও ক্লান্ত বৃদ্ধলোক,
গোধুলি বেলাতে আসে ধীর পায়ে হেঁটে,
মাড়িয়ে আবাদের মুক্তার আগলানো ঝিনুক,
সুখের অন্য নাম বোধ হয় অনারোগ্য অসুখ!  
ভালোবাসা মানে হলো ভরা জলে ভাসা নদী,
বিসর্জনের দিনে হৃদপিন্ডের তীব্র আকুতি!  
ভেসে যায় দেবী ধীরে গভীর অন্ধকারে,
হালকা আলোয় ভাসে শুধু স্মৃতি, 
অপ্রতিরোধ্য মৃত্যুতেও তার নেই ক্ষয়ক্ষতি!  

পুণ্যতোয়ায় ভেসে হারায় বেহুলা অবশেষে,
কলমি ফুলের বনে লক্ষীন্দর বাঁচে দীর্ঘশ্বাসে,
কালীয় নাগের ফণা বিচ্ছুরিত করে দিল
মাটির আদলে গড়া কোমল হৃদয়!
নামছে সরণি জুড়ে পুঞ্জীভূত বিরহের ঝড়,
বিষাক্ত ভয় দোলে লাউয়ের ডগার মতো ফণায়!  

অবনত হও ফণা, থেমে যাক বিষধর ঢেউ,
হয়তো অপেক্ষাতে দূর প্রান্তরে বসে আছে কেউ!
চোখে তার গোধূলির হারানো হৃদয়,
ছায়াতে আলোতে ঘিরে রাখে ক্ষয়িষ্ণু জোনাকি,
গভীর সমুদ্রে ঝড়ে তাকেই বারংবার ডাকি!
নদী হোক ঝরা পাতা, বৃক্ষেরা হোক জল,  
পৃথিবীর ধুলো মাখা আয়নায় নামুক স্নেহের ঢল!
অবনত হও ফণা, ক্ষয়ে যাক গ্রন্থিতে জমা বিষ,  
আবারো জন্ম যদি হয় নীল গ্রহে,
মিশে যাব পুরাতন মঠটার অপেক্ষমাণ বিগ্রহে!
তুমি ডাক দিও পাখি ভোরে,
ঠোঁটে তুলো শিস,
সম্মিলিত নিঃশ্বাসে ক্ষয় হবে পৌরাণিক বিষ!
সুনীল সাগর তুমি ঘিরে রাখো স্বর্ণদ্বীপ ট্রয়,
অন্তত একবার হেলেনের নিয়তি খুঁজুক বিজয়!

ফটো ক্রেডিট @ নিজস্ব

২৮৩জন ৩১জন
0 Shares

৮টি মন্তব্য

মন্তব্য করুন

লেখকের সর্বশেষ মন্তব্য

ফেইসবুকে সোনেলা ব্লগ