নিষেধের বেড়াজালে আকণ্ঠ ডুবিয়ে
হাঁসফাঁসের এ ক্ষয়িষ্ণু জীবন,
জানলার খড়খড়িটুকুও হুকুমের দাস
অন্ধকার-বন্ধ কুঠুরিতে আলো-আধারের
হিসেব-হীনতায় টেনে টেনে এই একটু নিঃশ্বাস;

ফেঁসে যাওয়া এই স্তব্ধতায় বুকের মাঝে
ছলছলানি অবিরাম দোল খায়/দোল দেয়।
বাঁধা ছকে বাঁক খেতে খেতে কখন যে কে ফাঁসিয়ে দিয়েছে
বৃষ্টি-জলে-ভাসা চোখে চোখ লুকিয়ে কে জানে!

অকস্মাৎ খুলে যায় বন্ধ খাঁচা,
অচেনা এক ঢেউয়ে, নিষেধের বেড়া ভেঙ্গে/ঠেলে,
সূর্য-স্নানে গা-এলিয়ে আবার কবিতার অবগাহন
সময়ের ভেদ ভেঙ্গে,
মাস্তুলে আজ নীলের পাল, শণ-কেশের।

১৮০জন ১৫জন
1 Shares

১৮টি মন্তব্য

মন্তব্য করুন

লেখকের সর্বশেষ মন্তব্য