নিশীথে সোনেলা

সাবিনা ইয়াসমিন ১১ আগস্ট ২০২০, মঙ্গলবার, ০২:৪৭:৩৯পূর্বাহ্ন একান্ত অনুভূতি ৪২ মন্তব্য

সোনেলা! নামটির প্রেমে পড়ি প্রথমদিনেই। এতো সুন্দর একটা নাম, যার অর্থ খুঁজে নিতে হয় অনুভব দিয়ে। শৌখিন সুন্দর এই জগতের সন্ধান পাওয়ার পর সোনেলা অঙ্গনে নীড় বাধতে দেরি করিনি। একটুকরো জমিতে পরম মায়ায় গড়ে তুলেছি নিজের একখানা ঘর। আমার একান্ত নিজের ছায়া সুনিবিড়, শান্তির ঘর। এই আঙ্গিনায়  পেয়েছি শত শত বাড়ি। একেকটা বাড়িতে বসত করেন সোনালী মানুষেরা। ছন্দে-বর্ণে-ছবিতে  সাজানো গোছানো চমৎকার সব বাড়ি। দিনে-রাতে সারাক্ষণই আলোকিত এই বাড়িগুলো। প্রতিটি বাড়ির  আলোকসজ্জায় চোখ ধাঁধিয়ে যায়। অবাক করা ব্যাপার হলো, এখানে যারা নীড় বেধেছেন তারা কেউ-ই তাদের বাড়িতে দরজা জানালা বন্ধ রাখেন না!
সবাই আমন্ত্রিত, সবার জন্য উন্মুক্ত সোনেলার সোনালী মানুষদের নীড়।

সবাই ব্যস্ত থাকেন এই আঙ্গিনায়। কেউ লেখেন গল্প, কেউ স্মৃতিকথা। আত্মজীবনী, মনিষীদের পরিচিতি, স্বাস্থ্য বার্তা, খেলাধুলা। কেউবা গুনগুন করে লিখে যান কবিতা। কারো কারো মাথায় দেশপ্রেম, তারা দেশের সমসাময়িক বিষয় গুলো নিয়ে আলোচনা করেন। রম্যরচনায় আনন্দে ভাসিয়ে দেন কেউ-কেউ। কেউ-বা শুধুই একেকটা বাড়িতে ঘুরে বেড়ান, সঙ্গ দেয়াতেই তাদের আনন্দ। আপন নীড়ের দেখভালের পাশাপাশি জানালা দিয়ে উঁকি দিয়ে দেখে নেন পাশের নীড়ে হচ্ছে টা কী!

কেউ কিছু করতে পেরেছে( রচনা), ওমনি ছুটে চলেন তার সুখ-দুঃখ, অনুভব-অনুভুতির ভাগীদার হতে। কেউ তার লক্ষ্যে পৌঁছেছে, শুভেচ্ছা অভিনন্দন দিতে দেরি হয় না। এমনই এক সোনালী উঠোনের নাম সোনেলা!

সারাদিন এখানে আলোয় সয়লাব। ব্লগবাসীর আনাগোনায় মুখরিত। এই ঘর ঐ ঘরে ছুটোছুটি, হুটোপুটি। যেনো কলকাকলীতে ভরে থাকে চারপাশ। কারো কোনো বিশ্রাম নেই, নেই ক্লান্তি প্রকাশের ফুরসত!

আর রাত্রিতে?

সোনেলায় আসলে রাত নামেই না। রাত্রিতেও চলে সোনালী পাখিদের উড়াউড়ি-ঘুরাঘুরি। কেউ নেই, সবাই ঘুমিয়ে গেছে ভেবে অনেকেই আসেন রাত্রি নিঝুম হলে। চুপিচুপি দেখি, কি করছেন রাতের অতিথি। অতিথি হয়তো নিরিবিলি আঙ্গিনা পেয়ে চন্দ্রিমা স্নানে মগ্ন, ঠিক তখনই  সামনে গিয়ে চমকে দেই, কথা বলি মন্তব্যের ঘরে বসে। রাতে আর কেউ থাকুক বা না আসুক, আমার প্রিয় সখী বন্যা আসবেই, মাস্ট!

– এ্যাই, তুমি এতো রাতে ব্লগে কি করো?
= ইশশশ, তুমিও তো ব্লগে। নিজে কি করো?

আবার মাঝে মাঝে জ্বলজ্বল করে জ্বলে উঠে কিছু কিছু নীড়-বাতি। দূর-বহুদূর থেকে জ্বলে উঠা নীড়ের পাশে গিয়ে দাঁড়াই। চোখে প্রশ্ন, মনে কৌতুহল..

– কি ব্যাপার? এতোদিন পর?
= দেখতে আসি। অনেকদিন এখানে না এলে মনে হয় কিছু একটা মিস করছি। মন অস্থির হয়ে উঠে। তাই এসেছি।

নাহ, আর কিছু জিজ্ঞেস করা হয়ে উঠে না। প্রশ্নত্তোরের বাকিগুলো আমার জানা আছে।

সোনেলা! একবার যে তোমার বুকে ঘর বেধেছে, সে তোমায় ভুলে থাকতে পারে না। পারবে না।

তোমারই আঙ্গিনায় আপন নীড়খানি মোর
গড়েছি মায়ার বন্ধনে,
দিবসে-নিশীথে তুমিময় আমি,
তোমাতেই পেয়েছি খুঁজে আপন করে আপনারে..

শুভ রাত্রি সোনেলা,
জয় হোক তোমার, জয়ী হোক তোমার আঙ্গিনা।
ভালো থাকুক আমার সোনেলা পরিবারের সব্বাই।

 

 

* ছবি -আমার 🙂

৪৫৭জন ২৪জন
0 Shares

৪২টি মন্তব্য

মন্তব্য করুন

ফেইসবুকে সোনেলা ব্লগ

লেখকের সর্বশেষ মন্তব্য