নিরক্ষর -হাতেখড়ি

বন্যা লিপি ২৫ জানুয়ারী ২০২২, মঙ্গলবার, ০৭:৪৭:১৮অপরাহ্ন একান্ত অনুভূতি ৩ মন্তব্য

শুনেছি পাতাদের কোলাহল!

বাদামী শরীরে তার অজস্র শিরা ঋনাবদ্ধ। ঝরেনি আকাঙ্খি বৃষ্টির বিলাস্য নামচা!

পথিকের কানে শ্রবণহীন ডামাডোলে নিরুত্তর থাকে যাবতীয় কথাদের দায়।

পাথর ভারী হলে জলের তলে আশ্রয় হয়।

তবে আর ঘোলাটে সময়ের গায়ে কলংক লেপে কে- কোন দুঃসাহসে!

বিভ্রম অথবা বাস্তবতার মাঝ বরাবর সেতু ঝুলে আছে বিপরীত জিঘাংসার বোঝাপড়া।

আঙুলের ক্ষত মনে করিয়ে দেয়, স্বরবর্ণ ব্যঞ্জন বর্ণের তাবৎ অহংকার।

পাতাদের শরীর দেখে দেখে আরেকটু বাড়িয়ে বেড়ে ওঠার সময় নিচ্ছি শুধু পৃথিবীর কাছ থেকে।

রেসের ময়দান যেখানে জোরেসোরে বসিয়ে যাচ্ছে জুয়ার দর কষাকষি!

পঙ্গুত্ত্বের শক্তি নিয়ে আমি সেথা  সিলিংএর পাখায়

পুরোনো ধ্যানগম্যির  রক্তাক্ত হৃৎপিণ্ড টানানো দেখি।  আমার চারপাশ ঘিরে থাকে ইট বালু’র গাঁথা দেয়াল। জানালা ভরা মৃত জোনাকির আলো।

উঠোনজুড়ে মরুভূমির ঋনখেলাপি চোখ,

ঘাসের বুকে জ্বলতে থাকে বারোমাসি অমাবশ্যার পিদিম।

চারা থেকেই আমি পরিচিত বটবৃক্ষ।

ছাড়িনা নগ্ন ছায়ার অভিশাপ।

আমারও ডাল থেকে পাতায় পাতায় অভিযোগের তালিকা;

তবু ছায়া দিয়ে বেড়ে ওঠায় কাউকে করি অভিশপ্ত।

গিলে যাই আরক্ত গোপন আরক।

হয়ে উঠি হৃত রাজ্যের সোনালী দুঃখ।

শব্দবন্ধ বাক্য ফিরে পেতে আমি নিরক্ষর -হাতেখড়ি নেবার চেষ্টায় বুঁদ হতে চাই….

 

ছবিঃ সোনেলা গ্যালারি থেকে

১৬০জন ১৪৩জন
0 Shares

৩টি মন্তব্য

মন্তব্য করুন

ফেইসবুকে সোনেলা ব্লগ

লেখকের সর্বশেষ মন্তব্য