নরকে সাকার শয়তানি

ফাহিমা কানিজ লাভা ১ অক্টোবর ২০১৩, মঙ্গলবার, ০৮:১৭:২৫অপরাহ্ন গল্প ১৯ মন্তব্য

মরার পর সাকা নরকের দরজায়। নরকে গিয়ে দেখে সেখানে কেউ নেই। প্রহরীকে জিজ্ঞেস করল- কিরে বিধাতার দালাল, কেউ নাই ক্যান, আমি কি দুনিয়ার একমাত্র পাপী নাকি?

প্রহরী বলল- অনেক পাপী ছিল নরকে কিন্তু সাকা আসবে শুনে সবাই আন্দোলন শুরু করল। তাদের একদাবি, সাকা যে নরকে থাকবে সে নরকে তারা থাকবে না। বাধ্য হয়ে তাদের আলাদা নরকে রাখতে হচ্ছে। বাই দা ওয়ে, আমাকে বিধাতার দালাল বলবেন না, আমি বিধাতার আদেশ পালনকারী প্রহরী মাত্র।

সাকা- তুই বিধাতার আদেশ পালনকারী প্রহরী হইলে আমিই বিধাতা।

প্রহরী সাকার কথা শুনে মাননীয় স্পীকার হয়ে গেল। এবার সে বুঝেছে কেন নরকে কেউ সাকার সাথে থাকতে চায়নি।

ওদিকে সাকা সুযোগ বুঝে প্রহরীকে ঘায়েল করে ফেলল ও বলল- শোন বিধাতার দালাল, ধর্ষণ যখন নিশ্চিত, তখন তা উপভোগ করাই শ্রেয়। আগে কুকুর লেজ নাড়াতো মানে পাপী শাস্তি পেত, এখন লেজ কুকুরকে নাড়ায় মানে তুই শাস্তি পাবি।

প্রহরী অসহায় হয়ে তেল দেবার চেষ্টা চালায়- সাকা ভাই, দোহাই লাগে, আপনি সুশীল মানুষ, এসব করবেন না।

সাকা বলল- সুশীল আবার কি? ‘সু’ মানে সুন্দর আর ‘শীল’ মানে নাপিত, তাহলে সুশীল মানে সুন্দর নাপিত৷ আর আমি একজন প্রবোধ বালক, এটা কি আমি কখনও বলেছি? তুই আমাকে সাকা ডাকবি না, আমি যদি সাকা হই তাইলে তুই …

উপায়ন্তর না দেখে প্রহরী কাতর কণ্ঠে বলল- হে আল্লাহ, আমি কি কোনো ভয়ঙ্কর সপ্ন দেখছি? শুনে সাকা বলল- এতো বেশি সপ্ন দেখিস ক্যান? তোর কি সপ্নদোষ আছে নাকি?

প্রহরী বুঝে নিল, এটাই বাস্তব। সাকার কাছে ধর্ষিত হবার লজ্জায় প্রহরী আত্মহত্যা করল। সাকা অপেক্ষায় আছে বাকি রাজাকারদের ফাঁসির জন্য, তারা এলেই তার মতো শয়তান কজন বন্ধু হবে নরকে।

২১৪জন ২১৪জন
0 Shares

১৯টি মন্তব্য

মন্তব্য করুন

ফেইসবুকে সোনেলা ব্লগ