প্রিয় অনুপম!

কেমন আছ তুমি? বেশ আছ, আন্দাজ করতে পারি, আমি ও তাই চাই। আমি খুব একটা ভালো নেই! এই ধরো কেবল বেঁচে আছি।

আজ আবারও তোমার দ্বারস্থ হলাম। কি করব বল? আমিত সেই খরা কবলিত অনুর্বর ভূমি যে ঘুরেফিরে বারেবারে ফিরে আসি তোমারই নদীতীরে! তুমি ও যে মরা নদী তাই হারিয়েছ অজানা কোন সমুদ্রে! কবি বলেছেন, “চলে যাওয়া মানে প্রস্থান নয়”। আমার ও তাই মনে হয়। ভীষণ মাথায় যন্ত্রণা হচ্ছিল ঘুমাতে পারছিলাম না। চিঠিটি তোমার হাতে পৌছাবেনা জেনেও যেই তোমায় লিখতে বসলাম সকল কষ্ট উধাও। বোঝ এবার, অস্তিত্বের রন্ধ্রে রন্ধ্রে তুমি আছ, অথচ জীবনের কোথাও নেই! কেমন করে মেনে নেই, ভেঙ্গে যাওয়া প্রিয় গ্লাস, শূন্যে মিলিয়ে যাওয়া অনুভবের নির্যাস! না’গো মানতে পারিনি, হয়তো পারবোনা আর কোনদিন। তুমি দূরের তারা হয়ে গেছো, ছুঁতে পারেনা ইচ্ছেরা আর।আজ হঠাৎ বহু দিন পর তোমার ছবিটি দেখে কি যে হলো বুকের ভেতর! পাড় ভাঙা তোলপাড়! সে আমি বর্ণনা করতে পারছিনা। শুধু জেনো তোমাকে আর ভুলে যাওয়া হলোনা। মন যেন কানে কানে বলে “বৃথা চেষ্টা করিসনে, যাকে এতো ভালোবাসিস তাকে কেন ভুলতে হবে? থাক্ না সে হৃদয়ের চিলেকোঠার ঘরে!

“আমি নিরুৎসাহিত হই কেননা তুমি তো দাওনা হৃদয়ের দাম। একাকী মধ্যরাতে তোমার স্মৃতিতে আমি কতোটা টালমাটাল বেসামাল সে-তো কেবল আমি জানি আর জানে রাতের আঁধার। তারও বেশি জানে অন্তর্যামী। অন্তর্মুখী আমি কেমন করে জড়িয়ে গেছি তোমার মাদকতায়! নিজের কাছেই মনে হয় পাগলামি। প্রলাপ বিলাপের অন্তরালে একবুক ভালোবাসা নিভৃতে কাঁদে! আর নিরাশার বালুচরে আশায় বুক বাঁধে। বিধাতা তোমায় ভালো রাখুক, সুখ সমৃদ্ধি ঢেলে দিক অবাধে। কি আর বলবো, যা-ই বলি, জ্বালাতনই করবো। তোমাকে দেখার সুতীব্র ইচ্ছেকে দমিয়ে রাখা গেলেও ভুলে যাওয়া হলোনা।তুমি আছ হৃদয়ে! জানো, আজকাল তোমাকে খুব দেখতে ইচ্ছে করে! ইচ্ছে করে একটুখানি ছুঁয়ে থাকি প্রিয় মুখখানি। অপলক চেয়ে থেকে টু শব্দটি ছাড়া  বলে ফেলি জমে থাকা সব ব্যাথা! আচ্ছা বলতে পার? কেন এমন করে দূরে চলে যেতে হলো?  খুব বেশি কিছু কি চেয়েছিলাম?

এই টুকুনই তো মাত্র! না দেখেও দেখা, না ছুঁয়েও  ছুঁয়ে থাকা। মনের উঠোনে শতরঞ্জি পেতে গল্পে মশগুল হওয়া। তোমার আকাশের জোছনার কিছুটা মুঠোয় পুরে নেওয়া। হীরা, জহরত মনি, মানিক্য কিছুই তো নয়!

তোমার একচিলতে স্মিত হাসির মূল্যের কোন বিনিময় পাইনি আজো। তাই তো রোজ তোমাকে লুকিয়ে দেখি, কখন ঘুমাও কখন জাগো, কখন কাজে যাও, কখন ঘুরতে যাও সবই দেখি। ইচ্ছে হলে সেই পথও বন্ধ করে দিতেই পার! মানা করেছে কে? নিজের সাথে চোখ মিলিয়ে দেখো কিন্তু ; আমার থেকে পালিয়ে তুমি খুব বেশিদূর যেতে পারোনি। তোমার স্মৃতি ছায়া হয়ে পাশে রয়ে গেছে অমলিন। বলেছিলে স্বশরীরে এসে ভালোবাসি বলবে, দূর আলাপনে এতো মূল্যবান বাক্যটি ব্যায় করে আমার প্রতিক্রিয়া দেখা থেকে বঞ্চিত হতে চাওনা।কতো পূর্ণিমা জোছনা বিলায়, শুক্লতিথির পঞ্চমীর চাঁদ আঁধারে মিলায়। কই তুমি তো আর এলেনা। আমি যে আজও অপেক্ষায়….।

আমরণ থাকবো, ভালোবাসি বলেই সেদিনও ফিরিয়ে দেবনা, শুধু একবার এসো! কথায় কথা বাড়াবোনা, কৈফিয়ত চাইবো না, তর্কের খাতিরে তর্কও করবো না। রঙধনুর মতো ছুঁয়ে দেওয়ার আগেই মিলিয়ে যেও। তবুও এসো! একবার ভালোবাসি শুনে হাজারবার মরে যেতে চাই। আজকের মতো বিদায় বন্ধু!

ইতি

তোমার প্রতীক্ষায় আমি

১৯৭জন ৪৮জন
0 Shares

১৫টি মন্তব্য

মন্তব্য করুন

লেখকের সর্বশেষ মন্তব্য

ফেইসবুকে সোনেলা ব্লগ