দেহলোভী কামনা!

তৌহিদ ২৩ মে ২০১৯, বৃহস্পতিবার, ০৮:৪৫:০১অপরাহ্ন একান্ত অনুভূতি ৩৪ মন্তব্য

অন্ধকারে নিজের পুচ্ছ থেকে নির্গত আলো দিয়ে হাসনাহেনার বাগানকে আলোকিত করবে ভেবে সেই যে জোনাকিপোকাটা একবার এসেছিলো, সে আজ হয়েছে নিরুদ্দেশ।

অযুত লক্ষ নিযুত বসন্তরা চক্রাকারে আসাযাওয়া করে আর নিত্য নতুন জোনাকিরা আলোয় ঝিকমিক করে জ্বলেনিভে মরিচবাতির মতন।

নির্বোধ হাসনাহেনাও মিছে ঘ্রাণের আশায় ফুটে যায় নিত্য; তবে সেই ভুবনজয়ী সুগন্ধির বদলে যা পেলো তার উপমা কেবল গান্ধী পোঁকাই হতে পারে বৈ অন্য কিছু নয়।

বিদঘুটে হুল বিদ্ধকারীর স্পর্শে মাতাল পানকৌড়ির রন্ধ্রে রন্ধ্রে আজ এ কেমন নেশা!! রোমকূপ শিউরে ওঠে, কামনায় বিধগ্ধ হয়। উন্নাসিকতার মোহে লালা ঝরে টপ টপ। বাতাবি লেবুর ঘ্রানে নুয়ে পরে শয়তান!

দিনশেষে আবারও রাত্রি নামে ধরনীর বুকে, হাসনাহেনারা প্রস্ফুটিত হয় ঘর্মাক্ত রমণীর বিস্বাদ নিয়ে। লালা ঝড়া নেড়ি আবারও উদ্বেলিত হয় গান্ধির লোভে।

ঝিঁঝিঁ ডাকা সন্ধ্যায় বেহুশ নির্লজ্জ জোনাকিটা আজ আবারও পুচ্ছ থেকে নীলাভ আলো নির্গত করছে বাতাবি লেবুর সুগন্ধি পাবার মোহে।

আহারে! হাসনাহেনাটা কেবল প্রস্ফুটতই হলো। তার শুকনো রসে এখন নাম না জানা পক্ষীসমাজের আনাগোনা। সে না পেলো বাতাবি লেবুর ঘ্রান, না দেখলো জোনাকীর পুচ্ছরিত আলো।

৩৮৮জন ১৪৬জন
11 Shares

৩৪টি মন্তব্য

মন্তব্য করুন

ফেইসবুকে সোনেলা ব্লগ

লেখকের সর্বশেষ মন্তব্য

সাম্প্রতিক মন্তব্যসমূহ