দূরত্ব

সৌবর্ণ বাঁধন ১৩ জুলাই ২০২১, মঙ্গলবার, ১২:১৫:৪৩অপরাহ্ন কবিতা ১৫ মন্তব্য

তুমি উত্তর মেরুতে বসে আছ,
বরফের চাদর ও বালিশ জমে আছে,
আমিও দক্ষিণ মেরুতে অকারণে
ঘোরাঘুরি করছি,
নেতিয়ে পড়া সিগারেটে,
ফসকে যাচ্ছে বন্দুকের মতো লাইটার!
আমাদের মাঝখানে,
পৃথিবীটা একটানা ঘুরছে আর ঘুরছে,
বহুদিন ঘুমায় না বোধ হয় সে!

একই রঙের ছাদ তোমার আমার,
অথচ কতোটা দূর ভাবো একবার,
ছুঁতে গেলে পৌছায়না হাত!
দেয়ালে দেয়ালে উঁকি দেয়া চোখ,
শার্লক হোমসের মতো,
লক্ষ্য করে গেলো আমাদের,
এতোগুলো বছর,
তারপরো দৈনিকে প্রতিদিন ছাপে,
ভুলভাল খবর,
এখনো জানেনা পৃথিবীর সব লোক,
আমি কে হই তোমার!

হাজার চাকার অদ্ভুত লিমোজিন,
গিয়েছিলো গ্রহণের কালে,
তোমার বারান্দায় তখন কাঠগোলাপেরা
বাজাচ্ছিল সঙ্গীত একতালে!
বুঝতে পারোনি উদ্ভট হয় সব প্রেম,
হ্যালুসিনোজেনের মতোই অবাস্তব!  
আমার কাছেও এসেছিল পরদিন,
আমিও চড়তে জানিনা কিম্ভুত যান,
প্যাচার মতো বসেছিলাম চুপচাপ!
এখন পৃথিবী ঘুরছে আমাদের মাঝে,
দুইজন পাশাপাশি বসে আছি
নিশ্চুপ! যদিও আন্তঃদুরত্ব
নক্ষত্রের মতো বহুদূর,
তবু ভাবছি কে কার কতোটা কাছের!

চোখের সামনেই ঝাঁপ দিল পেঙ্গুয়িন,
শীতল জলে নাচে উষ্ণ জীবন,
তোমার আমার মাঝে আদিম সাগর!
একটা রহস্যদ্বীপ ভেলার মতোন,
ভাসে আর ডোবে!
সাগরটা পার হলে হয়তো বা,
তোমাকে দেয়া যেতো মৃদু ছোঁয়া,
পৌরাণিক দূর্ভাগ্য আমার,
সিন্ধুঘোটকের মতো পারিনা সাঁতার!

৩০০জন ৫১জন
0 Shares

১৫টি মন্তব্য

মন্তব্য করুন

ফেইসবুকে সোনেলা ব্লগ

লেখকের সর্বশেষ মন্তব্য

সাম্প্রতিক মন্তব্যসমূহ