অতলান্ত সমুদ্রের বুক চিরে
আন্দোলিত ঊর্মির ঢেউ ডিঙ্গিয়ে কোনো এক উপসাগরের তীরে
দুর্মূল্য অমূর্ত এক শয্যা সাজিয়ে বসে রব রক্তিম চাঁদের এক রাত্রির অপেক্ষায়।
দীঘল প্রশান্তির পূর্ণ চন্দ্রের আলোকময় এক রাত্রির অপেক্ষা।
অবয়ব দিতে না পারা ছায়াসঙ্গি সে পূণ্যআত্মার জন্য আর অপেক্ষা নয়
এ অপেক্ষা এক রক্তিম চাঁদের অপেক্ষা
এ আমার দুঃখ সহনের বিলাসিতা ভোগ করা নয়।
শত সহস্র রাত্রি আমার কেটে যাক এমনি এক অপেক্ষায়
এ আমার তীর্থ যাত্রা।
শতো সহস্র শতাব্দী এমনি করে অপেক্ষায় কেটে গেলো আমার এক একটি রক্তিম চন্দ্ররাত,
তোমাকে সাজাতে জীবন থেকে উৎসরিত হয়েছে যতো শব্দ, যতো আবেগ
তাকে ভাসিয়ে দিয়েছি, ভেসে গিয়েছে ইচ্ছা অনিচ্ছায় সমুদ্রের নোনা জলে।
উপকূল থেকে উপকূলে গড়ে উঠেছে শতো শতো প্রেমে ও অপ্রেমের সব সভ্যতা
সে সব প্রত্নতত্ত্বের মাঝে এক নাম
সম্রাজ্ঞী,
ভেসে যাওয়া কিছু আবেগে ফুটেছে কচুরিপানার বেগুনি ফুল।

,,,,,,রিতু,,,,,
২৫.৭.১৮.কুড়িগ্রাম।

৩১১জন ৩১১জন
0 Shares

১৬টি মন্তব্য

মন্তব্য করুন

লেখকের সর্বশেষ মন্তব্য

ফেইসবুকে সোনেলা ব্লগ