: তোমার জানালায় অনেক শব্দ রেখে যাবো।

-আমি কালো কাঁচের শার্শি খুলে দিয়ে তুলে নেবো শব্দের বৈচীদানা। একটার পর একটা সুতোয় গেঁথে নেবো ভাষা কাব্যের মালা।

:তোমার চুলে রেখে যাবো হাত।

– এলো চুলে নির্বাক শব্দে থির হয়ে দেখবো দূরের আকাশ। ভুলে যাবো কোথাও কখনো আগেও বেজেছে সারেঙ্গীর সুরতাল!

: হাতে রেখে যাবো আমার আঙুল।

–ছোঁয়াটুকু থেকে যাবে গহিনের বন্দরে!

:তোমার আঁচলে রেখে যাবো আদর

–বিমূর্ত সময় থমকে যাবে অসময়ের সমতার ফিসপ্লেটে। মুখবন্ধ উচ্চারনে আওড়ে যাবে শালিক আর চড়ুইয়ের সঙ্গীত।

: দৃষ্টিতে রেখে যাবো কায়া
তোমার হৃদয় ছিনতাই করেছে কেউ?
নাহলে রেখে যাবো মায়া।

— রূপকথার গল্পেরা জ্বালাবে নীলচে আলোর ছায়া। যেথা প্রহরের গুঞ্জণে উঠবে জেগে প্রাচীণ সাঁঝমায়ার বাতি।
পাঁজরের কাছে কান পেতে জেনে নাও, ওইখানে কে গড়েছে নিবাস অলক্ষ্যে এসে!

: তোমার নূপুরে রেখে যাবো হৃদয়ের ছন্দ;

–আলতা রাঙা হয়ে উঠবে অবাধ্য শৃংখলে বাঁধা পায়ের গোড়ালি। জলছাপ শাড়ির আঁচল গুজে কোমড়ে উঠবে নেচে সবুজ কিশলয়ের বুকে বৃষ্টি যেমন আছড়ে পড়ে!

: কাঁধে রেখে যাবো ঘামের গন্ধ। চিবুকে রেখে যাবো আমার স্পর্শ!

–ঋদ্ধ হবো বারে বারে। হবো ঝিলের জলের ফোঁটা জলপদ্ম। তবু থেকেই যাবো অধরা আকাশের প্রাহরিক কাব্য হয়ে।

: তোমার সিথানে রেখে যাবো অপরাজিতা। পায়ের কাছে রেখে যাবো নিশির শিশির।

–থেকে যাবো অনন্তকালের মেঘবালিকা। শিশিরে ভেজাবো আধেক তৃষ্ণার অধর! তোমার কন্ঠ আমি একটা জীবন ধরে চাই। দিও অজস্র ব্যাথা আর লম্বা ছুটির অবসর । তবু বলোনা আলবিদা।

৭১৬জন ৫৩০জন
24 Shares

৪৪টি মন্তব্য

মন্তব্য করুন

ফেইসবুকে সোনেলা ব্লগ

লেখকের সর্বশেষ মন্তব্য