তীরে-বেঁধা আনন্দ-ধ্বনি

ছাইরাছ হেলাল ১৫ জুন ২০১৭, বৃহস্পতিবার, ০৮:২০:৪৮পূর্বাহ্ন একান্ত অনুভূতি ১৪ মন্তব্য

পর্দাপুশিদার নিয়ম মেনে
নক্ষত্র এবার ঘুমোবার কথা ভাবছে, ভাবছে,
বদ্ধ-দুয়ারের নির্লজ্জতা এ-পাশ-ও-পাশ করে
অভাবিনীর সংসারে, সমূহ ঝড়ের পূর্বাভাসে!!
রক্তচক্ষুর নতজানুতা আর নয়, আজন্ম অনিবার্য
খরা-বৈষম্যের এই নিরন্ন দেশে;

কিন্তু একি!!
উষ্ণ হচ্ছে ধমনী একটু-একটু করে, প্রকারন্তরে,
সোনালী নকশা-আঁকা বাহারি-আকাশ, ইশারা করে,
হাতছানি দেয়, ডাকে;
হৃদস্পন্দন দ্রুততায় দ্রুততর হয়, তড়পায়, তড়পায়,
স্তব্ধতার থাকুমুকু নীরব সমুদ্র জেগে-ওঠে, ভিজে-যায়,
উপছে-পড়ে ভিজতে থাকে, ক্রম-অস্থিরতায়,
অসহ্যের ঘুমহীনতায়;
শোণিতের নিভু আগুন, দাউ হয়ে জ্বলছে,
জ্বলবে-এবার, পুড়বে-না, পোড়াবে, ছাড়খার করে;

সহসা সশব্দ বিজলীর প্রগার আলিঙ্গনে
দিকহারা আনন্দের অযুত মন্থন,
ছুটছে সুঘ্রাণ, তীরে-বেঁধা আনন্দের কাতরানিতে
ইচ্ছুক ঠাণ্ডা-বাতাস হেলে আছে, নিবিড় সকালের
রেশমি গিলাফেরর নীচে।

৩২৮জন ৩২৮জন
0 Shares

১৪টি মন্তব্য

মন্তব্য করুন

লেখকের সর্বশেষ মন্তব্য

ফেইসবুকে সোনেলা ব্লগ