ঢাকা টু চট্টগ্রাম –পূবাইল (স্টেশন নং – ৭)

কামাল উদ্দিন ২৩ জানুয়ারী ২০২০, বৃহস্পতিবার, ০১:৩৪:১৬অপরাহ্ন ভ্রমণ ১৮ মন্তব্য

একদিন বিকেল বেলা কয়েক বন্ধু মিলে রেল লাইনে হেটেছিলাম, আশেপাশের চমৎকার পরিবেশ ও গ্রাম্য প্রকৃতি আমাকে পাগল করেছিল, তারপর আরো কিছু পাগলের সাথে শলা-পরামর্শ করে বেড়িয়ে পড়ি রেল লাইনে হেটে হেটে গ্রাম বাংলাকে দেখার জন্য। এবং সিদ্ধান্ত নেই ঢাকা থেকে চট্টগ্রাম পর্যন্ত রেল লাইন ধরে হাটবো। এটাই ছিলো আমাদের রেল লাইন পরিকল্পনা, ইতিমধ্যেই আমরা চট্টগ্রাম পৌছে গিয়েছি ………….

ঢাকা থেকে চট্টগ্রাম যেতে অনেকগুলো ছোট স্টেশন আছে যেগুলোর নাম এবং সংখ্যা অনেকেই জানেন না, আমি ও জানি না । আমি এক ষ্টেশন থেকে পরবর্তী স্টেশনের মধ্যবর্তী স্থানগুলোর ছবি দিব এবং প্রতি ষ্টেশনের জন্য একটা করে পোষ্ট । এতে করে স্টেশনের নাম এবং সংখ্যাটা ও হিসেব হয়ে যাবে ।

আমাদের হাটার ধরণঃ- সারাদিন রিলাক্স মুডে রেল লাইন ধরে হাটব, সন্ধ্যায় গাড়িতে করে বাড়িতে ফিরে আসব । এই সপ্তায় যেখানে আমার হাটা শেষ হবে আগামী সপ্তায় সেখান থেকে হাটা শুরু করবো এবং আবারো সন্ধ্যায় বাড়িতে ফিরে আসব । এভাবেই পর্যায়ক্রমে আমি চিটাগাংএর দিকে অগ্রসর হব এবং যতদিন না আমি চিটাগাং পৌছতে পারি । প্রতি সপ্তাহে হাটা আমাদের দ্বারা সম্ভব
না হওয়ায় দীর্ঘ দিন লেগে গিয়েছিল চট্টগ্রামে আমাদের পৌছতে। যদিও দিনের হিসেব করলে পনের দিন লেগেছিল।

স্টেশনের অবস্থানঃ এটি গাজীপুর জেলার টঙ্গী শহরের অন্তর্গত একটি স্টেশন।


(২) এটা পূবাইল স্টেশনের বৃটিশ আমলের লাল দালান।


(৩) এতোটা পথ হাটলাম মুখটা একটু ঝাল না করলে কেমনে হয়?


(৪/৫) ঝাল মুড়িতে আর কতোটা পেট ভরে? স্টেশনের ছোট্ট হোটেলটা থেকে তৃপ্তি সহকারে ভর পেট খেয়ে নিলাম।


(৬) এবার নব উদ্যমে হাটা ধরলাম চট্টগ্রামের দিকে।


(৭) তাল গাছ তিন পায়ে দাঁড়িয়ে। গাছগুলো এখানে অন্য রকম সৌন্দর্য্য সৃষ্টি করেছে।


(৮) তিনটা লাইন আস্তে আস্তে এগিয়ে গিয়ে একই বিন্দুতে মিলিত হলো।


(৯) দুইপাশে সবুজের সমারোহ, হাটতে কিন্তু বেশ লাগছিল।


(১০) ওই তো বাঁক পেড়িয়ে আমাদের দিকে এগিয়ে আসছে যান্ত্রিক অজগর।


(১১) পথে এমন বুনো ফুলেরা আমাদের আমাদেরকে স্বাগত জানিয়েছে অবিরত।


(১২) হাটি হাটি পা পা, চট্টগ্রামের দিকে এগিয়ে যা……..


(১৩/১৪) গাছের আগায় ডগায় দিনের বেলাই দেখলাম ঝুলছে চাঁদ মামা।


(১৫) পাশের খালে রেলের খুটিতে বাধা দুটি নৌকা।


(১৬) এক সময় দেখা মিলল এমন একটা শুকরের পালের সাথে।


(১৭) দেখা মিলল চমৎকার একটা বট গাছের সাথে।


(১৮) পেছন থেকে আসা একটা ট্রেন। শেষ বিকালের সূর্যের আলো রেল লাইনে সৃষ্টি করেছিল অন্য রকম একটা সৌন্দর্য্য।


(১৯) আকাশে এদিন ছিল পূর্ণিমার চাঁদ। চাঁদের আলোয় রেল লাইনে হাটার মজাটাও এদিন নিয়ে নিয়েছিলাম।


(২০) অবশেষে আমরা পৌছতে সক্ষম হলাম পরব্তি স্টেশনে।

১১২জন ২২জন
3 Shares

১৮টি মন্তব্য

মন্তব্য করুন

ফেইসবুকে সোনেলা ব্লগ

লেখকের সর্বশেষ মন্তব্য