সোনেলা দিগন্তে জলসিড়ির ধারে

-দোস্ত আমি আর পারতাছি না, বিশ্বাস কর জীবন ডা তেতো হইয়া গেছে।family, relationship, study খালি প্যারা আর প্যারা।কোনদিন না আমি সুইসাইড কইরা বসি।

-আরে মরবার আগে কইয়া যাইস বিরিয়ানি খাইয়া আসুম নাইলে এহনই ট্রিট দিয়া যা ব্যাটা।যা গিয়া ঘুম দে,সব ঠিক হইয়া যাইবো।

ডিপ্রেশনের প্রথম পর্ব শুরু।ডিপ্রেশন মানে কী? ডিপ্রেশন মানে হলো একগুঁয়েমি। আপনার মনের একগুঁয়েমি। আপনার কিছু করতে ভালো লাগবে না,খেতে ইচ্ছে করবে না, সব কিছু যন্ত্রণা মনে হবে।শান্তির পথ খুঁজে পাবেন না সর্বদা এটা ওটা নিয়ে চিন্তায় জর্জরিত থাকবেন।

নিশ্চয়ই প্রশ্ন করবেন  একগুঁয়েমি কেনো বললাম?

একগুঁয়েমি বলার কারন এই আপনি ডিপ্রেশন থেকে মুক্তি পাওয়ার পথ খুঁজবেন এবং পেয়েও যাবেন কিন্তু সেই পথ ধরে হাঁটবেন না,কারন আপনার ভালো লাগবে না সেই পথ।আপনি আপনার চিন্তাধারার ওপর অঢল থাকবেন।

যদি আপনি প্রথম ধাপেই এই একগুঁয়েমি কাটাতে পারেন তবে নিশ্চিত ভাবে বাকি ধাপগুলো হ্যান্ডেল করতে পারবেন।

আরে বলা তো সহজ,যন্ত্রণার আপনি কী বুঝবেন?

আসলেই আমি বুঝবো না,আপনার যন্ত্রণা আমি কখনোই অনুভব করতে পারবো না।আমি কেনো আপনার কোনো আপনজনই না।সবাই কেবল সান্ত্বনা দিতে পারবে বা মজা নিতে পারবে গুটিকয়েক মুক্তির পথ দেখাতে পারবে।আর কিচ্ছু না।মোটকথা আপনি খেতে না চয়লে তো আর জোর করে খাওয়াতে পারবে না।আপনাকেই আপনার জন্য সব করতে হবে।

নিজেকে ভালোবাসতে হবে সবার আগে,পৃথিবীর মায়া বারবার পাবেন না।আপনি চলে গেলে কারও কিচ্ছু হবে না বিশ্বাস করুন কিচ্ছু না।দু চারদিনের কষ্ট তারপর শেষ।

খারাপ সময় সবসময় থাকবে না,রাতের পরই তো সূর্যের দেখা পান।তাহলে  আত্মবিশ্বাস কম কেনো?ভালোসময় আপনার খুব নিকটেই থাকে কেবল আপনিই ছুঁতে চান না।

সুইসাইড সমাধান নয়,একগুঁয়েমি কাটান,প্রথম ধাপ থেকেই সমাধানের জন্য লেগে পড়ুন,সেইসব বন্ধুদের সঙ্গ ত্যাগ করুন যে আপনার খারাপ সময়ে মজা নেই।আর নিজের খারাপের সময়ের কথা কাউকে বলবেন না,নিজে সমাধানের পথ খুঁজুন এবং কাজে লাগান।আপনি যাদের কাছে দুঃখ প্রকাশ করতে যাবেন তারাই উল্টো ডিপ্রেশন বাড়িয়ে দেবে।খুব চাপ অনুভব করলে একান্ত প্রার্থনায় আপনার সৃষ্টিকর্তাকে বলুন,তিনিই উত্তম সাহায্যকারী।

 

ডিপ্রেশন থেকে নিজে বাঁচুন, অন্যকে বাঁচতে সাহায্য করুন।

 

৮১৫জন ৩৫৭জন
73 Shares

১৩টি মন্তব্য

মন্তব্য করুন

ফেইসবুকে সোনেলা ব্লগ

লেখকের সর্বশেষ মন্তব্য