তোমায় আমি ঝরা পাতার কাব্য শুনাব
এস,
ঝুম ঝুম স্বরে ঝরে পড়ে ওরা, পাশে
বস।
তুমি পরে আছ আজ ফড়িং রঙ্গের শাড়ি
ভেবোনা,
মেঘগুলো সব সুবোধ বালক, ফিরছে ঘরে
ছোঁবেনা।
পিঠের উপর শেষ বিকেলের রোদ
যেন,
আঁচল হয়ে জড়িয়ে আছে তোমায়,
কেন,
মিথ্যে পাচ্ছ ভয়, অন্ধকারের এখনও কিছুটা
বাকি,
কাটুকনা আরও কিছটা সময় হাতেতে হাত
রাখি।
নাকের ডগায় জমছে ঘামের
শিশির,
এ যেন রঙ্গিন সূরায় মত্ত কোন ঘুম হারা এক
নিশির।
সাঁঝের বাতাস চাইছে তোমায়, তুমি রাখছো আঁচল
টেনে,
যেন গোধুলি আকাশ সন্ধ্যা শালিক, ওরাও তোমায়
চেনে।
তোমায় দেখি তোমায় আঁকি, কাব্য লেখার
ছলে,
মনের গদ্য সাজিয়ে রাখি তোমায় দেব
বলে।
ভালবাসি বলতেই এত লজ্জা পাচ্ছ
কেন,
অধর খানা রক্ত জমে, সিঁদূর হল
যেন।
থূতনিটাতে ভাঁজ পড়েছে চোখ যে
পলক হীন,
এ যেন এক কঠিন কাব্য ভাষাটাও
অচীন।
হাত বাড়িয়ে দিলাম তোমায় হাতটা ধর
আমার,
ভরসা রাখ ফাগুন বেলায়, ঘর সাজাব
তোমার।
গদ্য-পদ্য হাওয়ায় ভাসাই, ছিঁড়ে করি
কুটি-কুটি,
তুমিই আমার নতুন কাব্য, আর সকলের
ছুটি।

৩৩৮জন ৩৩৮জন
0 Shares

১২টি মন্তব্য

মন্তব্য করুন

ফেইসবুকে সোনেলা ব্লগ