জ্যাম

রুমন আশরাফ ১৫ নভেম্বর ২০১৯, শুক্রবার, ১১:৫৯:৫২অপরাহ্ন একান্ত অনুভূতি ২৩ মন্তব্য

দৃশ্য- ১

 

পড়ন্ত বিকেল। প্রায় বিশ মিনিট ধরে রিকশায় বসে আছে হাসান। রিকশার সামনে-পিছনে বিশাল জ্যাম। বলতে গেলে রিকশাটি একদমই অনড় অবস্থায় রয়েছে। রিকশাওয়ালা তার আসনে বসেই এদিকওদিক তাকাচ্ছে। জ্যাম ছাড়ার অপেক্ষায় আছে। তবে তার অবয়বে বিরক্তির কোনও লক্ষণ দেখা যাচ্ছে না। এমন জ্যাম তাদের হরহামেশাই সহ্য করতে হয়। পড়ন্ত বিকেলের সূর্যের তির্যক আলোর তেজটি ভীষণ। গরম আর জ্যামের কারনে হাসান বেশ বিরক্ত এবং বিচলিত। ঘামে ভিজে টি-শার্টটি গায়ের সাথে লেপটে আছে। প্রচণ্ড মেজাজ খারাপ হচ্ছে হাসানের। আজ বিকেলে পুষ্পিতার সাথে ওর দেখা করার কথা। জ্যামের যে অবস্থা তাতে সময় মত পৌঁছতে পারবে কিনা ভাবছে। বড়ই বিরক্তিকর এ জ্যাম। কখন যে জ্যাম ছুটবে!!!

 

 

দৃশ্য- ২

 

হাসান আর পুষ্পিতা একে অন্যের হাত ধরে রিকশায় বসে আছে। জ্যামের কারনে রিকশাটি নিশ্চল। রিকশাওয়ালার দৃষ্টি সামনের দিকে। উদাস হয়ে তাকিয়ে আছে আর একটু পরপর গামছা দিয়ে মুখমণ্ডলের ঘাম মুছছে। হাসানের মধ্যে এবার বিরক্ত কিংবা বিচলিত হবার ভাব প্রতীয়মান নয়। বরং বেশ প্রাণবন্তই

লাগছে ওকে। দীর্ঘদিন পর আজ পুষ্পিতার সাথে ওর দেখা হল। হাসান মনে মনে ভাবছে, আরও কিছু সময় যদি এভাবে পাশাপাশি থাকা যেত! এই জ্যাম যদি আরও দীর্ঘ হত!!!

 

(মূলকথাঃ জ্যাম শুধুমাত্র বিরক্তির উদ্রেক করেনা বরং কখনও কখনও অতি আনন্দও প্রদান করে থাকে)

 

৩৩৫জন ১৯১জন
3 Shares

২৩টি মন্তব্য

মন্তব্য করুন

ফেইসবুকে সোনেলা ব্লগ

লেখকের সর্বশেষ মন্তব্য