জীবন আমার,আমার না!

রাফি আরাফাত ২ নভেম্বর ২০১৯, শনিবার, ১২:৪৭:৫৬পূর্বাহ্ন একান্ত অনুভূতি ১০ মন্তব্য

হাটতে না পারা শিশুটি আজ অনেক বড় হয়ে গেছে। কিন্তু সে জানে না বড় হয়ে সে কি ভুলটা করেছে। সে শুধু এখন জানে,তাদের আশা পূরণ করতে হবে। সে কেমন আছে সেটা ভাবার সময়ও এখন তার নাই, সামনে তাদের ভালো রাখতে হবে এটা ভাবতেই তার দিন শেষ। সে বেঁচে আছে সেটা সে ভুলে গেছে আজ, কারন বাকি সবাইকে যে বাঁচাতে হবে তার জীবন দিয়ে!

সন্তান বড় হলে বাবা মা বড় অবুঝ হয়ে পরে। তারা তখন বুঝে না তার সন্তানের এতো চাপ ভালো লাগে না। তারা বুঝেনা তার সন্তানের এটা ভালো লাগে না। তারা এখন অবুঝের মতো প্রতিদিন বলতেই থাকে,তোকে এটা হতে হবে,নয়তো এই জীবনের মূল্য নাই।

ঐ আকাশে তাকিয়ে থাকার সময় নাই আজকে, অথচ তাকে কোলে নিয়ে আকাশ দেখার অভ্যাসটা তারাই করিয়েছিলো। জীবন কি জানে,এই জীবন এখন অন্যের বেঁচে থাকার জন্য নিজেকে বিভিন্ন দরে মানুষের কাছে বিক্রি করে দিচ্ছে।

দিন দিন সব স্বপ্ন কমতে শুরু করছে। বেঁচে থাকার কারন কমতে শুরু হয়েছে। অন্যের আশা দেখে তাকে স্বান্তনা দাওয়ার অভ্যাসটা অধিক বেড়ে গেছে, একদিন সুখে থাকবো ভাবনাটা কোথায় যেন হারিয়ে গেছে, আমি যেন মরে গেছি, বেঁচে আছি জোর করে!

কাল কি হবে ভাবতে ভাবতে ভুলে গেছি আমি আজকে কি হবে। অতীত আমার কেমন ছিলো এ কথা ভাবতে ভাবতে রাত কাটে আমার চোখের জলে। ভালো আছি আমি বলা মানুষটা যেন আজ ভুলে গেছি ভালো থাকার কারন। মানুষ কিভাবে ভালো আছে সেটা দেখে আজ মনে হয়, আমি কি পাগল হয়ে গেছি। হ্যাঁ, এখন হয়তো আমি পাগল হয়ে ভালো আছি।

শেষ হওয়া জীবনটাকে আবার শুরু করতে হবে। আবার ভাবনাটাকে শুরু করতে হবে। কিন্তু কিভাবে, হচ্ছে না তো। কিছুতেই কিছু হচ্ছে না তো,আর হবেই বা কি করে, আমি তো মরে গেছি আমার মাঝে।

[ আজকের ভালো থাকার মানে সেদিনের ভালো থাকা নয়!]

৯৮জন ১৬জন
3 Shares

১০টি মন্তব্য

মন্তব্য করুন

ফেইসবুকে সোনেলা ব্লগ

লেখকের সর্বশেষ মন্তব্য