জীবনের গল্প_১

আকাশনীলা ২৮ জানুয়ারী ২০২০, মঙ্গলবার, ০২:৫৮:১৬অপরাহ্ন গল্প ২১ মন্তব্য

প্রত্যেকটি মেয়ের জীবনে আজন্ম লালিত কিছু স্বপ্ন থাকে। সদ্য কৈশোরে পা রাখা নয়নার জীবনেও ছিলো আজন্ম লালিত কিছু স্বপ্ন। নয়নার বিয়ে হবে,  ঘর হবে,বর হবে, সুখের সংসার হবে। নয়না তার বরকে পাগলের মতো ভালবাসবে। শ্বাশুড়ি মা’কে সে নিজের মায়ের মতো ভালোবাসবে, সেবা যত্ন করবে। মোদ্দা কথা সে একটা সুখের স্বর্গ রচনা করবে তার স্বামীর ঘরে। এসবের পাশাপাশি সে ভার্সিটিতে পড়ারও স্বপ্ন দেখতো। নয়না ছাত্রী হিসেবে খুব একটা দুর্বল ছিলো না। নয়না সবসময় পড়ালেখায় ব্যস্ত থাকতো। সকাল সন্ধ্যা যখন দেখো নয়না হাতে বই নিয়েই বসে থাকতো।

তিন ভাইয়ের একমাত্র আদরের বোন নয়না। একমাত্র কন্যা হওয়ায় নয়না বাবা মায়ের কলিজার টুকরা। মায়ের হার্টবিট, বাবার স্পন্দন ও ভাইদের চোখের মণি নয়না। স্বভাবে নয়না প্রচণ্ড জেদি, রাগী, একরোখা, দুরন্ত, চঞ্চলা। নয়নার মা তার মেয়েকে পাগলের মতো ভালোবাসতো। নয়না যখন যা চাইতো সাথে সাথে মা তাকে দিয়ে দিতো। নয়না এতো দুরন্ত ছিলো যে কেউ কেউ তাকে হরিণের সাবকের সাথে তুলনা করতো। সবার এতো এতো ভালোবাসায় দারুণ চলছিলো নয়নার জীবন।

ছোট্ট নয়না দেখতে দেখতে বড় হতে থাকলো। এস এস সি পরীক্ষা দিলো। রেজাল্ট এর অপেক্ষায় থাকলো নয়না। রেজাল্ট বের হলে নয়না কলেজে ভর্তি হবে। কলেজে পড়বে এই ভেবে সে কি আনন্দ নয়নার। আর মাত্র কয়েকটা দিন। তারপর নয়নার রেজাল্ট বের হবে। হঠাৎ নয়নার এক কাজিন একটা ছেলেকে নিয়ে নয়নাদের বাড়িতে এলো। বললো ছেলেটি নয়নার ভাইয়ের বন্ধু। সে সময় নয়না বাঁশের মাচায় বসে কামিজে ফুল তুলছিলো। নয়না পড়াশোনার পাশাপাশি হাতের কাজেও ছিলো দারুণ পারদর্শী। এক নজর ছেলেটিকে দেখে আবার নিজের কাজে মন দেয় নয়না।

একদিন নয়না তার মেজ খালার বাড়িতে বেড়াতে গেলো। হঠাৎ মা তাকে ফোন করে বলে যে ছেলেটা এসেছিলো, সে তোমাকে দেখতে এসেছিলো। তার তোমাকে পছন্দ হয়েছে। তুমি কি বলছো? ১৫ বছর বয়সী নয়না কতোটুকুই বা আর বোঝে দেখতে  আসা। তবুও নয়না বললো ‘ভালোই তো’ দেখতে ছেলেটা। জীবনের সবচেয়ে বড় এবং প্রথম ভুলটা করেই ফেললো নয়না। ‘ভালোই তো’ বলে

নয়নার বাবা কাউকে কিছু না বলে নয়নার বিয়ে ঠিক করে ফেলো। ছেলেটির বাবা দেখতে এলো মঙ্গলবারে আর বিয়ে ঠিক হলো শুক্রবারে। হুট করে কেমন যেনো সব এলোমেলো হয়ে গেলো। নয়না কিছু বুঝে উঠার আগেই বিয়ে হয়ে গেলো তার। সেদিনই নয়নাকে নিয়ে যায় শ্বশুরবাড়ি।
নয়নার শাশুড়ি যখন নয়নাকে বরণ করে নামাতে এলেন তখন নতুন বউকে দেখে  অন্ধকারাচ্ছন্ন হয়ে গেলো তার তুলোর মতো ধবধবে ফর্সা মুখোশ্রী……..

৪৩১জন ২৫০জন
24 Shares

২১টি মন্তব্য

মন্তব্য করুন

ফেইসবুকে সোনেলা ব্লগ

লেখকের সর্বশেষ মন্তব্য