সোনেলা দিগন্তে জলসিড়ির ধারে

জল-বৃষ্টির শরৎ

ছাইরাছ হেলাল ২০ আগস্ট ২০২১, শুক্রবার, ০৪:০২:৫৪অপরাহ্ন একান্ত অনুভূতি ১৮ মন্তব্য

 

প্রত্ন-খননে খুঁজে পাই অসংখ্য আনন্দ-শব্দ, বিষাদের মোড়কে,
কিছু স্বপ্ন-পোড়া-ছাই, সহমরণ ও;

আকাশ যেদিন পোয়াতি হলো, নীলাকাশ স্বেচ্ছা-নির্বাসনে
যাবে বলে চোখ ভরে কাঁদতে লেগে গেল, এক চূড়ান্ত
অবিশ্বস্ততা, মেনে নেয়া যাচ্ছে না; নির্ঘাত পরীদের কারসাজি;

দীর্ঘ-চুলের সিঁথি বেয়ে সকাল বৃষ্টি নেমে এলো শরৎ নৈকট্যে,
দূরত্বের ফিতে ফেলে রেখে, কুচি কুচি করা সৌহার্দ্যের উষ্ণতা নিয়ে;

বিশ্বাস খুইয়ে পরকীয়া শেষে, মেঘ-আড়ালের বিপরীতে
ছেনাল-পনার হু হু করে দোল খাওয়া কাশবন মন্দ লাগে না,
স্যাঁত স্যাঁতে প্ররোচনায় সিঁড়িতে সিঁড়িতে চুনকামের হাসি,
ছুটে চলা নিষ্পাপ নৌকার পুলক বিস্ময়ে জড়িয়ে থাকে,
গুঁড়ি গুঁড়ি জল-বৃষ্টির শরৎ সরোবর।

ছবি নেটের।

১৫৩জন ১২জন
9 Shares

১৮টি মন্তব্য

মন্তব্য করুন

ফেইসবুকে সোনেলা ব্লগ

লেখকের সর্বশেষ মন্তব্য