জলজ নিঃশ্বাস

বনলতা সেন ১৮ জানুয়ারী ২০১৫, রবিবার, ০৩:১৫:২৮অপরাহ্ন একান্ত অনুভূতি ৫৯ মন্তব্য

স্বর্গোদ্যানের সোনা-রংয়ের ভোরকে নিয়ে ছিনিমিনি?
বেছে নেবো বেপরোয়াকে,গাছেদের ছায়ায় বসে হবে ব্যাপক চুলোচুলি।
মল্লযুদ্ধ জয়ের শেষে,ভোরের সাথে তবুও অতীতের সকল নজির অক্ষুণ্ণ রেখে দীর্ঘস্থায়ী হবে
চিনিসম্পর্ক চাঁদের বনে।কামাখ্যা মন্ত্রের জাদুটোনা সবার হয় না, সবাই পারেও না।
হেঁসেলের চিমনিটা ঠায় দাড়িয়ে গলগলে সাদা ধোঁয়াবিহীন,ভালোবাসার আগুনেকাঠের অভাবে।
বৃষ্টিগন্ধা সবুজে মোড়ানো ফুলচঞ্চল সোনা ভোর,মূক হয়ে কত-কিইনা শুনবে এবার।
ফিরে পেলে হারানো কিছু,সাময়িক মাথানষ্ট কচকচানিতে বিরক্ত হতে নেই।
দুঃখ-শরে জর্জরিত ছেঁড়া-খোঁড়া হৃদয়ে কত কথা বলেরে!

ছলারকলা দেখে ভুলনা খুব-সুরত মায়াবী ভোর,
বেগানা হয়োনা ঝিরিঝিরি এই সকালের কলোচ্ছলে।
আমার কুজনের সহসা ঝলসে ওঠা কুয়াশার জল মাখা কথার মায়ায়
হাঁ হয়ে, নীল ঘাসে ঢাকা সবুজের গালিচায় পা হড়কে যেও না যেন।
বশীকরণ মন্ত্র আসেনি শিখে।
সুখের দুর্ভিক্ষের অসুখে উছলানো জলজ নিঃশ্বাস,
সতীনের শৃঙ্খলিত ভারিক্কি বিস্বাদে ধম্ম দেখতে নেই।

প্রশান্তিতে প্রশান্ত হয়ে সুখমত্ত হোক বু’য়ের হৃদয়।
বিবর্ণ প্রাণ-মন,কেঁদেভাসা দু’চোখে ফুল ফুটুক হীরেভোরকে কাছে পেয়ে।
উধাও দুঃখে ঝলোমেলো প্রাণের আভা।

সাবধানে খেয়ো পিঠে-পুলি,দুষ্টু কুটুমের কাছে।
ফিরে এলেই খেতে দেব দুধ্মাখাভাত,আস্তে-সুস্তে এসো ভোর,
এসেছো যেমন আগেও।
===========================================
সবুজ ঘন বনের দেশে
খড়-বিচুলির জাবর কেটে,
বেস আছিস সুখের দেশে
চিন্তা বিহীন খুশির বেশে,
থাক কিছুকাল দিনের শেষে
পৌষ-পাবনের ফাগুন মাসে।
================================
বিদেশের বিভূঁইয়ে
আঁচলে জড়িয়ে,
রাখিস তারে
হৃদয় জুড়ে।
=============================
ভোরের আবীর মেখে
শূন্যতায় চোখ মেলে
বনদেবী হেসে ওঠে,
অষ্টাদশীর জ্যোৎস্না হয়ে
ঘুঙুরের মদির আওয়াজে।

৫৭৯জন ৫৭৯জন
0 Shares

৫৯টি মন্তব্য

মন্তব্য করুন

লেখকের সর্বশেষ মন্তব্য

ফেইসবুকে সোনেলা ব্লগ