জন্মভূমি প্রিয় মাতৃভূমি

শিরিন হক ১৫ নভেম্বর ২০১৯, শুক্রবার, ১২:২৮:৩০পূর্বাহ্ন কবিতা ১৮ মন্তব্য

 

মাগো! তোমার উঠোনে আজ শূন্যতা হাহাকার করে মানবতার অভাবে।
কিছু আগাছা আর শেয়াল কুকুরের উৎপাত বড্ড বেমানান।
পশ্চিমারা চলে গেছে সেই কবে!
তবুও তারা কিছু বিষাক্ত বীজ বপন করে দিয়ে গেছে গোপনে।
আজ তা মাথাচাড়া দিয়ে বৃক্ষের ন্যায় দাঁড়িয়ে আছে তোমার বুকে।
প্রতিনিয়ত তোমার হৃদয় খুঁড়ছে।
তোমার সোনালী ফসল, সবুজ বনানী উজার করে
তোমাকে শ্মশান করে দিতে চায়,
যেমনি করে বায়ান্ন, একাত্তরে তোমাকে করেছিল রক্তাক্ত!

অমাবস্যায় ধ্যানরত কোনো সাধক যেমন সাধনায় মত্ত থাকে।
আমিও প্রতিরাতের নীরবতায় সুখের সাধনায় চোখের জলে আর কষ্টের আগুনে আরাধনা করি নতুন সকালের।
আমি নিঃস্ব হয়ে ফিরে আসি আমার কাছে।
আশাহত জীবন বাঁচে তবুও আশা ছাড়েনা মানুষ।
তাই বারবার আশা করি ঘুনে ধরা বিবেক জাগ্রত হোক।

যুদ্ধ তো শেষ হয়ে গেছে সেই কবে!
তবু কেনো যুদ্ধের ঘন্টা শুনি?
কোনো এক মুজিবুর এসে বলবে এবার থামো।
জন্মভূমি প্রিয় মাতৃভূমিকে আর কুলষিত করোনা।
সেই প্রতীক্ষায় প্রহর গুনি…

কোনো লাশকাটা ঘরে নয় পুরো শহরে আজ লাশের গন্ধ।
পচে গেছে মানুষের অন্তর।
দূষিত সমাজ।
খোড়া সৈনিকের মতো দাঁড়িয়ে আছে জাতির বিবেক।
রক্তচোষা জোঁক চুষে নিচ্ছে মস্তিষ্কের ঘিলু।
তোমার জন্য ভালোবাসার হৃদয়টুকু কোনো এক অন্ধকারে আহত পাখির মত ছটফট করে।
দানব শকুনের দল ডানা মেলে উড়ছে তোমার আকাশে।

মিছিলে,ব্যানারে,ফেস্টুনে,টকশোয় তোমায় নিয়ে কত কথার ফুলকি ওড়াই শহরের রাজপথ অলিগলি সবখানে।
আশা হীন আমি রাতের শেষে অন্ধকার থেকে অন্ধকারের অতলে নিমজ্জিত হই।
কোথায় আছি আমরা?
ইচ্ছে করে উলঙ্গ শরীরে প্রতিবাদ করি থামো এবার বন্ধ করো সব কলুষতা!
বুকের সন্তানকে বলিদান করি ওদের জন্য
তবুও থামো!
থামো! কি চাই বলো সব দেবো যতটুকো আছে আমার
থামো দেখো আমাকে আমার নারীত্ব, আমার সম্ভ্রম নিয়ে যাও।
বিনিময়ে কথা দাও থামবে!

একবার থামো ! আমার মাকে কলুষিত করোনা!
থামো!আমার প্রজন্মকে একটি সুন্দর সকাল দাও।
আমার জীবনের বিনিময়ে হলেও আগামী শিশুর নতুন একটি জীবন দাও।
আমার জীবনের বিনিময়ে কথা দাও আর কোনো জীবন নেবেনা!
কোনো মায়ের বুক খালি করবে না।

জানিনা মা- কবে তোমার বুকে সোলালী আলোয়…
মানুষের জন্য মানুষ জীবনের জন্য জীবন একটু সহানুভূতির হাত বাড়াবে!

২০৭জন ১৫১জন
8 Shares

১৮টি মন্তব্য

মন্তব্য করুন

ফেইসবুকে সোনেলা ব্লগ