ছোট বেলার স্মৃতিচারণ

আহমেদ ফাহাদ রাকা ৭ নভেম্বর ২০১৯, বৃহস্পতিবার, ০১:৪৫:০৩পূর্বাহ্ন একান্ত অনুভূতি ২০ মন্তব্য

ছোট বেলার এই আমিটা কতো সব উদ্ভট চিন্তা করতাম,এই লেখাটা ফেইসবুকে একবার লিখেছি,আর আজ এখানে লিখতে যাচ্ছি,যদি কেউ বিনোদন পান সেটা আমার সার্থকতা আর যদি কেউ মাইন্ড খান,সেটা খাইতেই পারেন,কারন এটাও এখন খাওয়ার জিনিসে রুপ পেয়েছে,এখন আসল লেখায় আসি,৯০ এর দশকের কথা, আমাদের বাসায় সাদাকালো একটা টেলিভিশন ছিলো সিটিজেন কোম্পানির, চ্যানেল মোড়াইয়া আনা লাগতো,একটাই চ্যানেল আসতো আর তা হলো বিটিভি,আর গভীর রাতে অনেক মোড়ানোর পর একটু একটু ভারতের দূরদর্শন চ্যানেলটা আসতো, ছোটবেলায় ভাবতাম টিভির মধ্যে এতো লোক কোথা থেকে আসে? কতদিন টিভির পিছনে গিয়ে দেখতাম মানুষ গুলো ঢোকে কোথা থেকে?পরে মনে করতাম তারের মাধ্যমে চিপা হয়ে এসে টিভির ভিতর ঢুইকা বড় হয়ে যায়, তারপর আসি ছোটদের বইয়ের কথায়, মুরগীর রানের মাংস দিয়ে একটা ছবি ছিল আর লেখা থাকতো (ম)তে মাংস, আম্মুকে জিগ্যেস করলাম এই রানের মাংস খেলে কি গায়ে বেশি মাংস হয়? আম্মু বললো হ্যাঁ,সেই থেকে এখন পর্যন্ত আমি মুরগীর রানের মাংস খাই না, তারপর আসি মানুষের নাম নিয়ে কিসব ভাবতাম আমি, নায়িকা অরুনা বিশ্বাসকে মনে করতাম সাবেক রাষ্ট্রপতি রহমান বিশ্বাসের ভাইয়ের মেয়ে, নায়িকা অঞ্জু ঘোষকে ভাবতাম বাজার রোড ঘোষ মিষ্টির দোকানের মালিক মন্টু ঘোষের আত্মীয়,তারপর বিখ্যাত গায়ক হেমন্ত মুখোপাধ্যায় কে মনে করতাম এই লোকটা মনে হয় মুখ দিয়ে পাদ মারেন তাই তার নাম হেমন্ত মুখোপাধ্যায়, শরৎচন্দ্র চট্টোপাধ্যায় কে ভাবতাম ইনি বোধহয় চট্টৎ করে শব্দ করে পাদ মারতেন,তাই তার নাম শরৎচন্দ্র চট্টোপাধ্যায়,আর দেশের সরকার যে কারা তা চিনতাম না, বাসায় একটা জাদুর বই ছিল আর তাতে লেখা ছিলো জাদু শিখুন পি,সি সরকার, ভাবতাম ইনিই মনে হয় দেশের সরকার 😂 কতো কিছুই যে এরকম চিন্তা করতাম, এখনো মনে পড়লে হাসি পায়, যাইহোক অনেক দিন ব্লগে আসি না।

৩৪৪জন ২৩৫জন
3 Shares

২০টি মন্তব্য

মন্তব্য করুন

ফেইসবুকে সোনেলা ব্লগ

লেখকের সর্বশেষ মন্তব্য