অযাচিত ঘাসফুল ভেবে ;

আমায় মাড়িয়ে গেছে অনেকে, কেউবা ক্ষনিক রেখেছে চোখে চোখ!

হাসিতে ফাঁসি হয়নি কারুর, স্বযত্নে লুকিয়েছি ফোঁটাগুলো অশ্রুর!

আমার চোখের বেদনার রক্ত করবী তুমি ছাড়া কেউ দেখেনি।

প্রিয়তম জানোইত

মনের ঘরখানায় অযত্নে শ্যাওলা পড়েছে, বসতি গড়েছে অসুখী ছত্রাক।

মৃত সমুদ্র পোষে বুক!

তাতে ভেসে থাকে সূক্ষাতিসূক্ষ অনুভূতিটি ও ,

সত্যি বলছি লক্ষীটি এমনটা আমি চাইনি।

এই লবণাক্ত প্লবতা তুমি ছুঁয়ে দিলে নুয়ে পড়বে,

পুনরায় প্রতিস্থাপিত হবে প্রেমের সৌধ!

দুঃখের ছদ্মবেশে প্রায়শই যমদূত এসে পাশে বসে।

সে যে জানেনা ; তোমার ভালোবাসা আমার নিরাময়, আমি আজ মৃত্যুঞ্জয়ী।

বালাই ষাট, এমন দিন যেন না আসে!

দেহবসানে নয় ; আমার মৃত্য হবে তোমার প্রেমহীনতায়! আমার গোর হবে তোমার বুকের কোটরে!

প্রিয়তম!

তুমি আমি মুখোমুখি!

মাঝখানে আমাজনের ফুটন্ত নদী!

ভালোবাসা জেনো,

আর জেনো, আমাজন মূলত ঘুমহীন দীর্ঘ রজনী!

১৪৭জন ৩জন
0 Shares

৫টি মন্তব্য

মন্তব্য করুন

ফেইসবুকে সোনেলা ব্লগ

লেখকের সর্বশেষ মন্তব্য