চিঠিটি পকেটে ছিলও

ছন্নছাড়া ২৪ ডিসেম্বর ২০১৩, মঙ্গলবার, ০৪:৩২:২৮অপরাহ্ন বিবিধ ১৪ মন্তব্য
শহীদ মুক্তিযোদ্ধা দুলালের হাতের লেখা চিঠি

তারিখ ০৪-১০-১৯৭১
মাগো
সবেমাত্র রণাঙ্গন থেকে ফিরে এসে শিবিরে বিশ্রাম নিচ্ছি । একটা বিস্তীর্ণ এলাকা শ্ত্রুমুক্ত করতে পেরে শন্থির নিঃশ্বাস ফেলেছি । মনটা তাই বেশ উৎফুল্ল । হঠাৎ মনে পড়ল তোমাকে বাড়ি থেকে আসার পর এই প্রথম তোমাকে লিখছি । ইচ্ছা থাকা সত্ত্বেও তোমায় লিখতে পারিনি । বাঙ্কারে বসে আছি । বাইরে ভীষণ বৃষ্টি হচ্ছে। বৃষ্টি আর বাতাসের শব্দ মিলে একটা চাপা আর্তনাদ ভেসে আসছে ।
মাগো আজ মনে পরছে বিদায় নেবার বেলায় তোমার করুন হাসিমুখ সাদা ধবধবে শাড়িটা বেশ মানিয়েছিল তোমাকে । সেদিন পূর্ব দিগন্তের সূর্যটা বেশ লাল মনে হয়েছিল । আমার কি মনে হয়েছিল জানো মা ? অসংখ্য বাঙালির রক্তে রঞ্জিত ওই লাল সূর্যটা । ওর প্রতিটা কিরণচ্ছটা পৃথিবীতে জন্ম দিয়েছে অগ্নি-শপথে বলীয়ান , স্বাধীনতার মন্ত্রে দীক্ষিত এক একটা বাঙ্গালি সন্তান । মাগো-তোমার কোলে জন্মে আমি ধন্য। শহীদের রক্তমাখা পথে তোমার আদুরে ছেলেকে আগিয়ে দিয়েছ । ক্ষণিকের জন্যও তোমার বুক কাপেনি, স্নেহের বন্ধন দেশমাতৃকার ডাক উপেক্ষার করতে পারিনি। মা, তুমি শুনে খুসি হবে যে তোমারি মতো অসংখ্য জননী তাঁদের স্নেহ ও ভালোবাসার ধন-পুত্র- স্বামী , আত্মীয় – সর্বস্ব হারিয়েও শোকে মুহ্যমান হয়নি বরং ইশপাতকঠিন মনোবল নিয়ে আজ অগ্নি-শপথে বলীয়ান ।
মাগো – বাংলার প্রতিতি জননী কি তাঁদের ছেলেকে দেশের তরে দান করতে পারে না – পারে না মা –বোনেরা ভাইয়েদের পাশে এসে দাঁড়াতে
তুমি তো একদিন বলেছিলে, সেদিন বেশি দূরে নয় – যেদিন এদেশের শিশুরা মা-বাবার কাছে বিস্কুট-চকলেট না চেয়ে চাইবে পিস্তল- রিভালবার ।
সেদিনের আশায় পথ চেয়ে আছে বাংলার প্রতিতি সন্তান সেদিন বাংলার স্বাধীনতার সূর্য প্রতিফলিত হবে , অধিকারবঞ্ছিত, শোষিত, নিপীড়িত বুভুক্ষ , সাড়ে সাত কোটি বাঙালির আশা – আকাঙ্খা। যে মনোবল নিয়ে প্রথম তোমা থেকে বিদায় নিয়েছিলাম, তা আজ শত গুন বেড়ে গেছে । শুধু আমার নয় , প্রতিতি বাঙলি খুনের হানছে মাতোয়ারা তাই তো বাংলার আনাচকানাচে এক মহাশক্তিতে বলিয়ান তোমার অবুঝ শিশুগুলোই আজ হানাদার বাহিনীকে চরম আঘাত হেনেছে – পান করছে হানাদার পশুদের তাজা রক্ত । ওরা মানুষ হত্যা করেছে – আর আমারা পশু হত্যা করছি । মা , মাগো । দুটি পায়ে পরি মা । তোমার ছেলে ও মেয়েকে দেশে ও জাতির ক্রান্তিলগ্নে ঘরে আটকে রেখ না । ছেরে দাও স্বাধীনতার উত্তপ্ত রক্তপথে । শহীদ হয়ে অমর হব , গাজী হয়ে তোমারই কোলে ফিরে আসব মা ।
মাগো – জয়ী আমারা হবই । দোয়া রেখো । জয় বাংলা ।
তোমারই
দুলাল

চিঠিটির লেখক শহীদ মুক্তিযোদ্ধা দুলাল । তার বিস্তারিত পরিচয় জানা যায়নি। বাংলাদেশে শহীদ মুক্তিযোদ্ধা দুলালের মতো অসংখ্য মুক্তিযোদ্ধা আছে যাদের পরিচয় জানা যায়নি দুলাল যখন মারা যায় তক্ষণ চিঠিটি পার পকেটে ছিল । চিঠিটি তার মায়ের কাছে পাঁঠানোর আগেই তিনি শহীদ হন । দুলাল ফুলবাড়িয়া সম্মুখ যুদ্ধে আহত হন এবং পরে মারা যান । আহত হবার পরে চিঠিটি তার পকেটে পাওয়া যায় …
দুলালের মায়েরও কোন খোজ পাওয়া যায়নি …

চিঠিটি মুক্তিযুদ্ধকালে জাগ্রত বাংলা নামে ময়মনসিংহের ভালুকা থেকে প্রকাশিত একটি পত্রিকা থেকে সংগ্রহ করা হয়

এই বীরের জন্য লাল সালাম

২২৭জন ২২৭জন
0 Shares

১৪টি মন্তব্য

মন্তব্য করুন

ফেইসবুকে সোনেলা ব্লগ

লেখকের সর্বশেষ মন্তব্য

️️ 🍂️️ 💝 ️️ 🌟 🌺 💐 💥 🌻 🍄 🌹 💐 ⭐️ 🎉 🎊