হতচ্ছাড়া ভোর আমার, কেমন যেন চুপটি মেরে গেছে। এ ঠিক সেই যাদুকরী ডাকিনীর ছায়ায় মজেছে। অমরাবতীর বাঁশি, বসফরাসের তীরে বসে বাদাম খাওয়া আর ব্র্যান্ড নিউ পিঠে পায়েসের লোভ।
-এই কি হয়েছে তোর? খুব যে অই যে কি যেন কি বলে, ইতং বিতং শুরু করেছিস।
=কিছু হয়নি তো। চা খাওয়া, কড়া তীব্র আফিম ঘ্রানের চা।
পুরো টিকটক ঘড়ির নিস্তব্ধতায়, যেখানে ব্যাল্কনির ঘুম ঘুম অন্ধকারে, শুধু চা এর ঘ্রান। ভোরকে বলি, চল এখান থেকে ঘুরে আসি কোন এক অরূপকথার রাজ্যে (কথা দিচ্ছি যাদু বিদ্যা চালাবো না) ………

ধরে নে, সেই রাজ্যের গেটে থাকবে একটি প্রাচীন ট্যাংক, হাজার হাজার গল্প বন্দী, জলে মেশা কস্ট বন্দী…

সবুজে ছাওয়া জলে ডোবা আকাশের পর্দা সরিয়ে আমরা এগিয়ে যাবো, গভীরে আরো গভীরে…

খুঁজে বেড়াবো গুম হয়ে যাওয়া বুড়ো সময় রহস্য। খুঁজে বেড়াবো স্মৃতি ভারে একটি একটি করে বাকল খুলে ফেলার ইতিহাস।

নামকরা ঔষধি স্বপ্ন দেখবো এমনি কোন কুটিরে, ঝিমুনি ধরিয়ে দেয়া জল ছোঁয়া বাতাসে ।

অবসরে এমনি এইচডি প্রদর্শনীর দর্শক হবো দুজন, কোন এক অদৃশ্য শিল্পীর আয়োজনে।

অবোধ্য ভাষায় তুমি আমিও গাইবো এলোমেলো সুর, ফাঁকফোকর গলে ভেসে আসা রূপসী আলোয় কিংবা চুমকি চুমকি বৃস্টিতে। কান পেতে রইবো আদিম মানুষের ফেলে যাওয়া আদিমতায়।

কোন এক গুমোট সন্ধ্যায় ”কে বেশি ভালোবাসে” হবে লড়াই, চলবে আড়ি, হবে বসতবাটির ভাগাভাগি।

10421998_392577067613375_5927130868284316357_n
শতাব্দীর আয়েশি রঙ জলে ডুবিয়ে, কথার চিঠি বানিয়ে পাতায় উড়িয়ে একদিন আমরাও ক্লান্ত হবো। এলিয়ে গায়ে অপেক্ষায় রবো রোরুদ্যমান মুখে, হুল্লোড় স্মৃতি জড়িয়ে, অপেক্ষার।

………………………………………………………… ভোর, এই ভোর। আবছায়াতে দেখি ঘুমিয়ে যাওয়া ভোরের নিষ্পাপ মুখ। এ হচ্ছে চা কিংবা গল্পের ভেজাল বিদ্যা 🙂

১২১জন ১২১জন
0 Shares

৬২টি মন্তব্য

মন্তব্য করুন

লেখকের সর্বশেষ মন্তব্য

সাম্প্রতিক মন্তব্যসমূহ