ঐ দূর গাঁয়ে,,

চল হেঁটে যাই ঐ দূর গাঁয়ে
ফাগুন দিনে,বনও ফুলে,
গোলাপ নির্যাস দুটি চোখে ঢেলে
নীল আকাশে শীতল বাতাসে মিশে!

কে ডাকে মায়াবী সকাল তুলে
শিশির ডুবানো আলোর, আলো পথে,
চল হেঁটে যাই ঐ দূর গাঁয়ে!
অ-গাঁয়ে সবুজ শ্যামলতা মাটির গন্ধ
চাষাদের গায়ে দোলে!

চল হেঁটে যাই ঐ দূর গাঁয়ে,
তুমুল হাওয়ায় ভর করে দিব্বি আসে,
মায়ের আঁচল বাতাসে মিশে!
স্নিগ্ধ কেশ- বৌ রানী বারান্দায় বসে
আলো তুলে ঘরের চার দেয়ালে।

চল হেঁটে যাই ঐ দূর গাঁয়ে….
আহংকারগুলো ভুলে,
ইচ্ছে পাখিদের ঝাঁকে উড়ে!
দিন শেষে ঐ গাঁয়েতেই ফিরে আসে
আলো ঝলমলে রাতের চাঁদ।

চল হেঁটে যাই ঐ দূর গাঁয়ে…..
কবে যেনও গিয়েছিলেম তুমি – আমি
মায়ের দুগ্ধ মমতা ভুলে আলো ঝলমলি শহরে!
বাসা ভাঙ্গে – অপলকে তাকিয়ে রয়-
মা কাঁদছে আঁধারে –
তুমি আমি আমার সবাই বন্দী শহরে!

চল হেঁটে যাই ঐ দূর গাঁয়ে
ফাগুন দিনে বনও ফুলে।

সঞ্জয় মালাকার //

২৬৬জন ১৪৯জন
9 Shares

১৮টি মন্তব্য

মন্তব্য করুন

ফেইসবুকে সোনেলা ব্লগ

লেখকের সর্বশেষ মন্তব্য