ঘুম-অঘুমের গভীরে

ছাইরাছ হেলাল ২১ নভেম্বর ২০১৮, বুধবার, ১০:০৬:০৫পূর্বাহ্ন একান্ত অনুভূতি ১৪ মন্তব্য

এই তো সেদিনের ওয়া ওয়া ওয়াও ওয়াও করা নাতি-শিশুটি
কুট কুট করে কথা কয়, গুট গুট করে হাঁটাহাঁটি করে,
হুট-হাট দৌড় ও দেয়; রং মেখে সং খেলে আনমনে,
আহা জীবন এই তো জীবন।

গলা-পচা নোংরা দুর্গন্ধের হাতির ঝিল আলোর ফোয়ারায়
রং মাতাল, যৌবন-তারুণ্য নৌকায় পাখা ম্যালে যখন তখন,
ছুটে চলে প্রান্ত থেকে দূর প্রান্তে;
ফাস্ট ফুড হেসে ওঠে চামচ-ছুড়ির টুং টাং মধুর শব্দে।

প্রচণ্ড ট্রাফিক জ্যাম ঠেলে ফেলে ছুটে চলা
দোকান থেকে দোকানে,
ফেঁপে ওঠা ভুরির আঁটসাঁট প্যান্ট ফেলে
আরও বড়, আরও বড়, ঢোলের মত ঢোলা প্যান্টের খোঁজে!
আহা জীবন, এইতো জীবন, এমনই জীবন।

কাজের ফাঁকে, ফাঁক গলিয়ে, ফাঁকি দিয়ে,
ছুটি, ছুটে যাই আনন্দ বিহারের ছলে
নদ-নদী পেরিয়ে সমুদ্র থেকে মহা সমুদ্দুরে,
যদি পাই পেয়ে যাই কিছু নুড়ি-ঝিনুক বা সোনালী রোদ;
ঘুম-মাতাল-চোখ খুঁজে ফেরে অস্তাচলের সোনালি সূর্য,
দেখতে দেখতে সময় যে কখন নাই হয়ে যাবে কে জানে!

তবুও খুঁজি, খুঁজে ফিরি, যদি পেয়ে যাই কোন
আনন্দ পাথর, বুকে বেঁধে ঘুমিয়ে যাব অতল ঘুমের গভীরে।
এইতো জীবন, এমন-ই জীবন।

0 Shares

১৪টি মন্তব্য

মন্তব্য করুন

লেখকের সর্বশেষ মন্তব্য

ফেইসবুকে সোনেলা ব্লগ