এই ঢাকা শহর আমায় কষ্ট পেতে দেয়নি ঢাকায় আসা প্রথম দিন গুলতে। এখন একায় নিঃসঙ্গ দিনযাপন করি। বাসায় খাওয়া রান্না টুকিটাকি মাঝে মাঝে নিজেই করা লাগে। দুখ কস্টে নাজেহাল জীবন বহমান।

আমার জুনিয়র কাম ফ্রেন্ড রাজ দূর রাজশাহি থেকে এসেই রান্না করে খাবে!! বুঝ জ্বালা। তয় মুরগি কিনে খাওয়া কাজ শুরু। রাজের হাতে পাক হচ্ছে মুরগীর মাংস।

রান্নারত অবস্থায়

 

রান্নার পর নাড়াচাড়া করা হচ্ছে।

রান্নার পর চুলায়রত মুরগীর মাংস।

খুব খুব ভাল রান্না করেছিল রাজ। খাওয়াটাও ভালই ত্রিপ্তিসহকারে হল। আমি রান্না করতে পারিনা। রাজ শিখায়ে দিল এভাবে রান্না করে খাবেন। হোটেলে খাওয়ার থেকে ঘরে রান্না খাওয়া অনেক ভাল। আর রান্না ঘরের দৃশ্য দেখে ময়লা আবর্জনা আছে নোংরা হয়।

আজ এখানেই শেষ হল। সবাই ভাল থাকুন।

২৬৬জন ৯৯জন
12 Shares

২৫টি মন্তব্য

মন্তব্য করুন

ফেইসবুকে সোনেলা ব্লগ

লেখকের সর্বশেষ মন্তব্য