যে প্রথম ভালো থাকে তাঁর শেষপর্যন্ত ভালো থাকা জরুরি। এজন্যই লোককথায় বলে- শেষ ভালো যার,সব ভালো তাঁর।

. অনেক গ্রুপ সাহিত্যচর্চা বাদ দিয়ে ফুর্তিচর্চা করা শুরু করে দিলে, আমার খুব কষ্ট লাগে। সাহিত্যচর্চা ছাড়া আমার  কখনও কিছু করতে ভালো লাগে না। আবার আমার স্বাধীনতায় কেউ হস্তক্ষেপ করলে, আমি নিজেকেই গুছিয়ে রাখি।

. গ্রুপ কখনও ভালো কিছু দেয় না। এক সময় ভাবতাম গ্রুপ ভালো কিছু দেয়, এখন বুঝি এবং দেখি বিভিন্ন গ্রুপ লিডাররা ভেবে বসে আছে-

. লেখকরা হলো গোয়ালের গরু, যা তালিকাভুক্ত দৈনন্দিন কাজ দিবে তা বাধ্যতামূলক করতে হবে। লেজ নাড়িয়ে নিজের মশাটাও মারা যাবে না, তাড়ানো যাবে না দেয়ালে পিঠ ঘেঁষে চুলকানির ক্ষততে বসা মাছিটিও। এমনকি গোয়ালের মালিক জন্মবিরতিকরণ ইনজেকশনের ন্যায় আপনাকে মেধাবিরতিকরণ ইনজেকশন দিতে আসলেও গুঁতো মেরে ফেলে দিয়ে প্রকাশ করা যাবে না, চেঁচিয়ে বলা যাবেনা আপনারা হলেন সাহিত্যজগতে হাতুড়ে ডাক্তারখ্যাত হিটলারের নাদুসনুদুস ফটোকপি।

. আমার স্বাধীনতা যেসব গ্রুপ-খাপ জিম্মি করে তাঁদের থেকে দূরে সরে থাকি এবং যথেষ্ট সম্মান রেখে। আমার মতো সাহিত্যচর্চা যারা করে তাঁদেরকে এখন আমি বলতেই পারি-

.  ‘স্বাধীনতায় যারা হস্তক্ষেপ করে তারা আপনার মেধা বিকাশে ধান ক্ষেতের ক্ষতিকর পোকার মতো। মনে রাখতে হবে আপনার মেধাই আপনার গ্রুপ, আপনার পেজ এবং আপনার প্রচার। আর যদি ভাবুন আপনার মেধা একজন মায়ের শাল দুধ এবং ফেইসবুক গ্রুপ বাজারের বাজারজাত  কোনো প্রসিদ্ধ দুধ। তখন দেখবেন সেসব গ্রুপে বড় হরফে সহিশুদ্ধ লেখা আছে কিনা- “মায়ের দুধের বিকল্প নাই।”

. তখনেই আপনি ভাববেন ভবিষ্যত প্রজন্মের জন্য সেইসব প্রসিদ্ধ গ্রুপের হজমশক্তির কথা।

 

[ছবিটি ব্লগ থেকে নেয়া ]

১৭৪জন ৩জন
0 Shares

১২টি মন্তব্য

মন্তব্য করুন

ফেইসবুকে সোনেলা ব্লগ

লেখকের সর্বশেষ মন্তব্য