গুজবের দেশ, হুজুগে বাঙ্গালী।

ইঞ্জা ৩০ জুলাই ২০১৯, মঙ্গলবার, ০৮:২৯:১৫অপরাহ্ন সমসাময়িক ২২ মন্তব্য

গুজবে গুজবে দিন যাচ্ছে আজকাল, এই গুজবে কান দেওয়ারও মানুষ কম নেই এই দেশে, আবার কোন সিরিয়াস বিষয়কে গুজব বলে উড়িয়ে দেওয়ার মানুষও কম নেই এই দেশে, উদাহরণ স্বরুপ আমাদের ঢাকার সিটি কর্পোরেশন মেয়রদ্বয়ের কথা বলতে পারি, দেখলেননা কিভাবে মহামারী ডেঙ্গুকে গুজব বলে উড়িয়ে দিয়ে ছিলেন উনারা যা খুবই দুঃখজনক এবং ভয়াবহ অবস্থার সৃষ্টি করেছে।

আজ আমি এসেছি কিছু পুরাতন নতুন গুজব নিয়ে যা আমাদের দেশে বেশ ডালপালা গজিয়েছিল বা গজিয়েছে।

আমি তখন বেশ ছোটো, যথাসম্ভব ‘৭৫ পরবর্তী সময়ের ঘটনা।
চারিদিকে শোরগোল পড়ে গেলো, কিছু একটা বিড়ালের রূপ ধরে মানুষকে আক্রমণ করছে, বিভিন্ন জায়গা থেকে খবর আসছে এমন ধরণের ঘটনার, কেউ বলছে টেনে নিয়ে গেছে, টেনে নিয়ে যাওয়ার সময় মানুষ গিয়ে উদ্ধার করেছে, কখনো নিহত বা আহতের খবরও আসছে, চট্টগ্রামে তো শোরগোল পড়ে গেছে, অনেকে বিড়াল মেরেও হাত পাকা করছে।
এমতাবস্থায় এক সন্ধ্যায় আমাদের পাশের বাসা থেকে আত্মচিৎকারের শব্দে সবাই হাজির, কি হলো কি হলো?
জানা গেলো পাশের বাসার মেয়েটা (১৬/১৭ বয়স হবে) এক কালো বিড়াল দেখেছে, যে কিনা ওর দিকে তাকিয়ে ফোসফাস করছিলো, এই দেখে মেয়েটার আত্মচিৎকার বেড়িয়েছে আর আশেপাশের অনেকের ত্রাহি অবস্থা।
বুঝেন অবস্থা।

এতো গেলো আমাদের ছোটোবেলার ঘটনা, এখন আসুন আজকালকার গুজব নিয়ে, যার উল্লেখযোগ্য কিছু গুজবের কথা বলি, যদিও গুজবের দেশে গুজবের অভাব নেই, যেমন মনে করুন বিখ্যাত কেউ হাসপাতালে চিকিসার জন্য ভর্তি হলেই উনি মারা গেছেন এমন গুজব হরহামেশাই হচ্ছে, যেমন সাবেক প্রেসিডেন্ট এরশাদ ইন্তেকাল করার আগেই এমন গুজব রটেছিলো।

কল্লা কাটার গুজবঃ
আহারে এই কল্লা কাটা গুজব, এমন গুজব আমরা ছেলেবেলাতেও প্রচুর শুনতাম, এ গুজবের প্রধান টার্গেট থাকতো যেকোন ধরণের বড় ব্রীজ তৈরির সময়কে।
যেমন এখন এই গুজবের টার্গেট ছিলো পদ্মা ব্রীজ, এই গুজবের ডালপালা গজাতে না গজাতেই এলো নতুন গুজব ছেলেধরা, এই ছেলে ধরা গুজবকে কেন্দ্র করে বাড্ডাতে নিরীহ রেনুকে পিঠিয়ে মেরে ফেলা হলো, চট্টগ্রামে কয়েকজনকে পিটানো হলো, নারায়নগঞ্জ, নেত্রকোনা সহ দেশের বিভিন্ন জেলায় বেশ অনেকেই আহত নিহত হলো, এইসবই আমি বলবো গণধোলাই নয়, সবই ক্লিন মার্ডার, এমন গুজব শুধু মাত্র দেশকে অস্থিতিশীল করার জন্য এবং সরকারকে বিপাকে ফেলানোর জন্যই করা হয়েছে বলেই আমার মনে হয়।

হারপিকঃ

এখন একদম লেটেস্ট গুজব হলো, ডেঙ্গু থেকে বাঁচতে আগামী শুক্রবার জুমার নামাজের পর ঢাকা শহরের সবাই নিজ নিজ বাথরুমের পানি যাওয়ার পথে ৫০০ গ্রাম ওজনের হারপিক অথবা ব্লিচিং পাউডার ঢেলে দিয়ে পানি ছেড়ে দিন, এতে সকল মশা, মশার লার্ভা মরে সাফ হয়ে যাবে।
আমি বলি কি, মশা মরবেনা তো ছাই হবে, আরে ফাজিলের ফাজিল আমরা ঢাকাবাসি যদি এই কাজ একযোগে করে তাহলে তো পুরা ঢাকা এবমগ এর আশেপাশের সকল জীববৈচিত্র ধবংসের মুখে পড়ে যাবে, এছাড়া আমাদের সুপেয় পানি বিষাক্ত হয়ে যাবে, আমরা তখন জীবন ধারণের জন্য পানি পাবোনা।
আবার এও বলছে জুমার নামাজের পর ফেলার জন্য, আরেহ বেয়াক্কেল জুমার নামাজের পর করতে হবে কেন, কেন আগে বা অন্যদিনে নয়?
আমরা হুজুগে বাঙ্গালী তো সবাই সবাইকে জানান দিচ্ছে, আমি সাবধান করছি, ভুলেও এমন করতে যাবেননা, এতে আমাদের সবার জীবন সংশয় হয়ে যাবে।

পরিশেষে আমার অনুরোধ থাকবে, প্লিজ আপনারা এমন সব গুজবে কান দেবেননা, এইসব গুজবের কোন ভিত্তি নেই, বরঞ্চ এইসব গুজবের কারণে নিজের এবং অন্যের জীবন নিয়ে টানাটানি হয়, মানুষের ক্ষতি হয়।
পারলে আশেপাশের মানুষকে বুঝান এইসব গুজবে কান না দেওয়ার জন্য, যত গুজবে কান দেবেন, ততই আপনাদেরই ক্ষতি।

সুতরাং সাধু সাবধান।

২৪৬জন ১২০জন
54 Shares

২২টি মন্তব্য

মন্তব্য করুন

ফেইসবুকে সোনেলা ব্লগ

লেখকের সর্বশেষ মন্তব্য