গুচ্ছানুভূতি -৫//

বন্যা লিপি ১ নভেম্বর ২০২০, রবিবার, ০১:১৭:৫৮পূর্বাহ্ন একান্ত অনুভূতি ১৪ মন্তব্য

১:

কী হারিয়েছ বাউল?/

 

 

তোমার আর নিঁখোজ হয়েছে কী বাউল? চিনেছ যখন অন্ধকারেে জোনাক গুনতে! একটা করে সিঁড়িতে পা রেখে হয়ে উঠেছ সাধকের পৈতে!

যেখানে হয়নি অভাব আঁধারের -আলো!

২:

আঁধারের  অন্ধকার-/

অন্ধকারের ভেতরে অন্ধকার গুণছি

তাকিয়ে আছি একটা করে সিঁড়ি ভাঙব বলে, চেয়ে দেখছি অন্ধকার নিয়েছে আমায় সবটুকু কেড়ে।

বিনিময় চাইলাম বলে, চুপ থেকে আরো লম্বা হয়ে গেলো অন্ধকার…..

৩:

অমৃতের খোঁজে-/

আমাদের দুঃখগুলো নির্বোধ! সহসা বোধ নিয়ে করে কানামাছি।আমরা নিত্য পড়ে থাকি,খুশি খুঁজতে দঙ্গলের ভীড়ে।

অবিরত রকম চিৎকারে চেঁচাই একফোঁটা গরলের বিপরীত অমৃতের খোঁজে। তবু হতস্যি ছাড়েনা বিশ্বাসের!  অপলক গ্যাঁট করে রেখে যাই আকাঙ্খার বায়না।

কোনো একদিন বিশ্বাস ফিরবে আপন ঘরে…….

৪:

পরিনতির অপেক্ষা-/

এখানে এখন মধ্য দুপুর  বিকেলের হামাগুঁড়ি। জাগতিক যত ব্যস্ততা থেমে গিয়ে কমলা রোদের হাতছানী। নৈকট্যপ্রত্যাশায় ক্রমশঃ ধীর পায়ে এগোচ্ছে ঘন অন্ধকারের যবনিকার ঘন্টাধ্বনি। চুপচাপ হেঁটে গেছে পথ দশকের পর দশক রোদের চাতাল।

উঠোনের শেষপ্রান্তে ঠাঁয় সংখ্যায় হলুদ রং নিয়ে অপেক্ষায় আছে একটা সুর্যমূখী! ঢলে যাবার সময় এলো বলে……..

৫:

সময়ের দেয়াল- /

দেয়ালটা ঠাঁয় দাঁড়িয়ে থাকে নিশ্চল!

ঘড়িটা সেঁটে আছে, দেয়াল বেয়ে বেয়ে নেমে যায় সময়ের স্রোত।

বালিয়াড়িতে লেখা নাম ধুয়ে দিয়ে যায় সমুদ্র ফেণিল ঢেউ…..

উষ্ণ চায়ের কাপে ঠোঁট রেখে, একজোড়া শীতল চোখ ধরে রাখে রাশি রাশি নোনাজল……।

২২৩জন ৩৮জন
0 Shares

১৪টি মন্তব্য

মন্তব্য করুন

ফেইসবুকে সোনেলা ব্লগ

লেখকের সর্বশেষ মন্তব্য