লুতুপুতু টাইপ আপন গার্লফ্রেন্ডকে খুশি রাখার ১৮ টি ছহি তরিকা————–

১। বুঝুক বা না বুঝুক সব বিষয়ে ওনার গুরত্বপুর্ন(!!) মতামত গ্রহন করিতে হইবেক ।

২। যখন খুব আগ্রহ নিয়ে কোন “ফাও প্যাচাল” শুরু করবে তখন মাঝ পথে বা শুরু করার আগে থামিয়ে দিয়ে বলা যাবে না “ধুর এইডা কিছু হইল” ।

৩। ২৪ ঘণ্টা ছোট বোনের সাথে বা রুমমেটের সাথে ঝগড়া করলেও বলতে “আহারে তুমি কত ভাল অন্য কেউ হলে তো ঐ ডাইনিরে মাইরা ফালাইত” । সেই সাথে সময় বুঝে এটাও বলিতে হইবে যে “আহারে ও কত ভালো” ।

৪। বন্ধুদের সাথে আছেন খুব হৈচৈ করছেন কিন্তু গার্লফ্রেন্ড ফোন দিয়ে ঝালাপালা করে দিচ্ছে , কিন্তু একটুও রাগ দেখানো যাবে না । উল্টা করুণ গলায় বলিতে হইবে “জানো খুব বোর লাগছে, আই মিস ইউ” ।

৫। আপন গার্লফ্রেন্ড এর সামনে ধূমপান নৈব চ নৈব চ । তবে একটার পর একটা সিগারেট ধরাতে ধরাতে ফোনে “তোমাকে ছুয়ে বলছি সেইদিনের পর থেকে বিড়ীতে টান দেয়া দূরে থাক ছুয়েও দেখি নাই” বলা জায়েজ ।

৬। আপন গার্লফ্রেন্ড এর সামনে ভুলেও কোন মেয়ের দিকে তাকানো যাবে না বা প্রশংসা করা যাবে না । ফেসবুকে কোন নায়িকার পেজে লাইক দেয়া যাবে না । বা কোন মেয়ের ছবিতে কমেন্ট করা যাবে না ।

৭। কোন মেয়ে সম্বন্ধে যখন আপনার “আপন গার্লফ্রেন্ড” কিছু বলবে তখন ভুলেও বলা যাবে না “ওরে তো আমি আগেই চিনি” ।

৮। সখ করে কোন দামি জিনিশ “আপন গার্লফ্রেন্ড” কে গিফট করা যাবে না । উল্টা মিথ্যা কথা বলে টাঁকা ধার নিতে হবে ।

৯। দেখা করতে চাইলে “ম্যালা কাজ,আইতে পারুম না” এটা বলা কবিরা গুনা ।

১০। যতই তাড়া থাক ডেট(রুম ডেট নয়) থেকে ফেরার সময় অবশ্যই বলতে হবে “যেতে ইচ্ছা করছে না” ।

১১। বিশেষ কোন অনুষ্ঠানে আপনি বাইরে বাইরে ঘুরে বেড়াবেন এবং আপনার জিএফ বাসায়ই থাকবে এটাই সাধারণত ঘটে । কিন্তু সারাদিন সে আপনাকে ফোনে বিরক্ত করলেও আপনি কিন্তু বিরক্ত হতে পারবেন না ।

১২। সে যা ভালো বলবে তা আপনাকেও ভালো বলতে হবে । খারাপ বললে আপনাকেও খারাপ বলতে ।

১৩। নিয়মিত সময় করে বাংলা সিরিয়াল দেখতে হবে । না দেখলেও চলবে । কিন্তু যখন তিনি আপনাকে সিরিয়ালের কাহিনী বলা শুরু করবেন তখন খুব আগ্রহী ভাব নিয়ে সে কাহিনী শুনিতে হইবেক ।

১৪। ভ্যাটকাইন্যা হিরো “দেব” এবং “রানবির” কাপুরকে পৃথিবীর সর্বশ্রেষ্ঠ পুরুষ হিসাবে আপনার স্বীকার করে নিতে হবে ।

১৫। সবচেয়ে গুরুত্বপুর্ন “আপন গার্লফ্রেন্ড” এর সামনে সব সময় এমন একটা ভাব নিতে হবে যে আপনার চেয়ে ধার্মিক পৃথিবীতে দুইটা নাই ।

১৬। ভূতের উপর পুর্ন আস্থা এবং বিশ্বাস রাখতে হবে । কারণ যখন আপনার  “আপন গার্লফ্রেন্ড” ভূতের কোন ঘটনা আপনাকে বলবে তখন তা আপনাকে বিশ্বাস করে চোখে মুখে ভয়ের ছাপ সৃষ্টি করতে হবে । পুর্ন আস্থা এবং বিশ্বাস না থাকিলে ইহা সম্ভব নহে ।

১৭। এবং “আপন গার্লফ্রেন্ড” কে কখনই “তুমি একটা বোকা” এই কথা বলা যাবে না । উল্টা নিজেকে বোকা বানিয়ে তাকে পৃথিবীর সেরা বুদ্ধিমতী প্রমাণের জন্য সদা সচেষ্ট থাকিতে হইবেক ।

১৮। একটা সফল ক্যাচালবিহীন প্রেমের পিছনে একজন মিথ্যুক বসবাস করে । বাকি টা বুইঝা লন ।

আমার ব্যাক্তিগত ও বন্ধুগত অভিজ্ঞতার আলোকে এই পোস্টটি লেখা । যদিও গার্লফ্রেন্ডকে খূশী রাখার ছহি তরিকা হাজার খানেক । তবে এখানে মাত্র ১৮ টা উল্লেখ করলাম । এবং ১৮ টা কারণের যে কোন একটার ব্যাতয় ঘটিলে ৩য় বিশ্বযুদ্ধের সম্ভাবনা দেখা যায় ।

৪৩০জন ৪৩০জন
0 Shares

১৮টি মন্তব্য

মন্তব্য করুন

ফেইসবুকে সোনেলা ব্লগ

লেখকের সর্বশেষ মন্তব্য

️️ 🍂️️ 💝 ️️ 🌟 🌺 💐 💥 🌻 🍄 🌹 💐 ⭐️ 🎉 🎊