গণতন্ত্র

জি.মাওলা ২৩ অক্টোবর ২০১৩, বুধবার, ১১:২৭:৪৩অপরাহ্ন এদেশ ৭ মন্তব্য

গণতন্ত্র

ছাপার হরফে, বক্তিতাই সভায় আমরা অনেক কথা বলি…… আদর্শ, গণতন্ত্র, মানবিকতা সম্পর্কে । এই শব্দ গুলির সঙ্গে এমনি আমাদের খুব প্রেম। এই প্রেম শুধু বলা আর বক্তিতাই বা লোকদেখানোতেই যেন সীমাবদ্ধ আমাদের জীবনে। কিন্তু ব্যাক্তিগত জীবনে আমরা নিজ স্বার্থ অনুযায়ী এগুলিকে উল্টে পাল্টে নিজেদের সুবিধা মত স্বার্থ মত করে ব্যবহার করি। তেমনি অসাম্প্রদায়ীক, ধর্মনিরপেক্ষতা, ও মুক্তমনা কথা গুলি নিজ স্বার্থ অনুযায়ী উল্টে পাল্টে নিজেদের সুবিধা মত স্বার্থ মত করে ব্যবহার করছে এই সুশীল সমাজ।
বাংলাদেশে গণতন্ত্র কি আসলেই আছে?
আর গণতন্ত্রের মানে কি এই ২ নেত্রীর গলা বাজি।গণতন্ত্র কি আজ এদের বাবা বা স্বামীর নিজস্ব সম্পত্তি?
গণতন্ত্রের নামে এ কি চলছে আজ চারদিকে। গণতন্ত্র আজ যেন দলতন্ত্রে রুপ নিয়েছে। আমাদের রাজনীতিবিদরা আজ গণতন্ত্রের সংজ্ঞায় যেন পাল্টে দিয়েছে।
লিংকন গণতন্ত্রকে সংজ্ঞায়িত করেছিলেন এভাবে—– The government of the people by the people for the people, shall not perish from the earth.
বাংলাদেশের ক্ষেত্রে এই সংজ্ঞার আধুনিক ভার্শন হবে এমনটা— The government of the leader by the leader for the leader, shall not perish from Bangladesh.

একটা কবিতা সকলের জন্য……………………………

সংবিধান গণতন্ত্র
কি ভালয় না দুটি শব্দ।
সংবিধানের কত যেন অনুচ্ছেদে,
বলা আছে
রাষ্ট্র ক্ষমতার মালিক,
আম জনতা যে।

গণতন্ত্রের সুবেশী নামে
অর্থেয় বলা আছে
সকল ক্ষমতার সূত্রপাতে
আবার সে আম জনতা যে।

গণতন্ত্রের নির্বাচনে
যে ক্ষমতায় আসে
গঠন করে সরকার সে
জনগণের ম্যন্ডেট নিয়ে।

সরকারী দল
কিংবা
বিরধি দল
যে যখন ক্ষমতায় থাকে,
তখন দেখি ঐ দুটি শব্দকে
হাস্য সম্পদে
পরিণত করে।

পেশি শক্তি আর সন্ত্রাস বলে
আম জনতা যে
পিঁপড়ের মত মরে।

কি হনুরে
আমরা এখন
গণতন্ত্র আর সংবিধানের
ক্ষমতা বলে।
https://www.facebook.com/golammaula.akas/posts/599438636790732

১৭৪জন ১৭৪জন
0 Shares

৭টি মন্তব্য

মন্তব্য করুন

ফেইসবুকে সোনেলা ব্লগ