ক্ষুদার্ত পৃথিবীর ছায়া

অনন্য অর্ণব ১৩ অক্টোবর ২০২১, বুধবার, ০৮:৩৪:৩৭পূর্বাহ্ন কবিতা ১৩ মন্তব্য

অর্ধেক পৃথিবী পুড়ে গেলে ছাই পড়ে থাকে –

অনাগত প্রজন্মের তরে,

দাউদাউ আগুনের লেলিহান শিখা –

মৌহারী মৌরীর নির্যাসটুকু পানকৌড়ির ঠোঁটের ডগায় 

শেষ চুম্বনের অপেক্ষায় যেমন উদগ্রীব ব্রজাঙ্গনা,

বিমিশ্র ললনার গোপন প্রকোষ্ঠে দিনান্তে বেড়ে‌ উঠা ভ্রূণ 

সেও সিংহাসন চায় এবং চায় সুশোভিত মখমল।

 

পৃথিবীর দ্বিতীয় প্রান্তে বিগলিত ক্ষমতার কেন্দ্র ঘিরে 

অজস্র কাকতাড়ুয়ার শিরোত্থান –

আঁজলা ভরে তুলে নিতে চায় মুরুনতাউ হিল –

মানুষের মুখোশে মানুষ-দানব, অতঃপর সে হয়ে যায় হেমলক, 

এবং পৃথিবীর পুনঃদহন দেখে অশরীরী ভিন্ন জগৎ ।

 

কেবল পার্থিব অহমিকা আর অভিন্ন চাহিদার ভেদে 

বেদ বাইবেল কোরানকে ও উপেক্ষা করে

বাহুবলে অর্থ অতঃপর সর্বগ্রাসী ফ্যাসিসমো –

মানুষ বিলুপ্ত হয় এবং হয়ে উঠে একজন কিন শি হুয়ান । 

 

সাম্রাজ্যের যাপিত চৌহাল পরম্পরা শিরদাঁড়া ধরি 

বিনিদ্র সম্পদ রচনা করেছে যে কালপুরুষ তথা 

অপশক্তির প্রয়োগ, অভিমিশ্র ধ্বংস তার প্রাপ্তির ফল

কেন সহস্র শতাব্দী ধরে তবুও মানুষ – 

মানুষের প্রাণ গিলে চলেছে অনর্গল ।

 

ছবি : ইন্টারনেট থেকে নেয়া 🌋

১৭৩জন ১জন
0 Shares

১৩টি মন্তব্য

মন্তব্য করুন

ফেইসবুকে সোনেলা ব্লগ

লেখকের সর্বশেষ মন্তব্য