ক্লান্ত রোদ হাঁটতে দেখি

বন্যা লিপি ২০ সেপ্টেম্বর ২০২১, সোমবার, ১২:৩৫:৪৬পূর্বাহ্ন একান্ত অনুভূতি ১৭ মন্তব্য

মুহুর্মুহু বিষন্ন  পাখোয়াজ বেজে চলে –

আমি কান পেতে রই তারও গভীরের ডাক শুনব বলে।

নীল  শুন্যতায় ছাওয়া আকাশে আজ শরতের ডাক ডাকছে ভীষণ সাদা মেঘে।

হরবোলা পাখিও বলে আমার নামটি কোথাও কী আছে পড়ে!!

উত্তর – দক্ষিন- পূর্ব – পশ্চিমের দিক,  কখন গিয়েছে মুছে কালের বয়স মেপে!!

রোজ সকালে  ঘুম জাগানিয়া দোয়েলের ঠোঁটে আয়ু কমানোর বার্তা শুনি….

কাঠের চেয়ারে নকশা আঁকি

চায়ের কাপে আলতো করে ঠোঁট রাখি….

তারও পরে…. মার্কিন কাপড় আর কর্পূরের গন্ধ শুঁকি।

দুপুর এলে রৌদ্র দেখি

রোদের চোখে শাসন দেখি

উষ্ণতার পারদ দেখি

বানের জলের গভীর মাপি

সঞ্চয়িতার উল্টোপিঠে মরা গোলাপের লাশ দেখি

বিকেল হলেই উত্তুরে হাওয়ার কাঁপন দেখি

ক্লান্ত রোদ হাঁটতে দেখি

কমলা আর ধুসর রঙের দাপট দেখি!!!!

দেখতে দেখতে আপন বিবর সাজতে  দেখি….

হাওয়ার কাগজ খুলতে গিয়ে নামের হরফ বিলোপ দেখি…. কোথায় ছিলাম

আছি কোথায় ভাবার আগেই হৃৎপিণ্ড চমকে বলে….কোথাও কী ছিলাম আমি???

 

নোট@ অনেকদিন লিখতে পারিনা তেমন কিছু। মাঝে  আমাদের ছেড়ে গেলো আমাদেরই আপনজন….শোকার্ত অনুভূতি প্রগাঢ হতে হতে মিশে যাচ্ছে বিষন্নতায়। এই লেখাটা বলা যেতে পারে এক রকম জবাব পোষ্ট। ব্লগার সাবিনা ইয়াসমিনের জানালায় শরৎ  লেখাটা পড়ার অনুভূতি দৌড়লো ঠিক এমন করে।

 

ছবিঃ নিজ

২০২জন ৩৬জন
0 Shares

১৭টি মন্তব্য

মন্তব্য করুন

ফেইসবুকে সোনেলা ব্লগ

লেখকের সর্বশেষ মন্তব্য