ক্যাসপার আপডেট  ২৮ আগস্ট ( আপাতত কেউ আর্থীক সহায়তা পাঠাবেন না )
অপারেশন পরবর্তি আআডেটঃ  দুপুর ২:৫০ মিঃ তারিখ ২৯ আগষ্ট

ব্লাড প্রেসার খুবই আনস্টেবল, ইউরিন আউট পুট স্বাভাবিক এর চেয়ে কম অন্য প্যারামিটার গুলো এখনো সীমার মধ্যেই আছে।
একজন কার্ডিওলজিস্টের অপিনিয়ন নিচ্ছি। ট্রিটমেন্টে আরো কিছু অষুধ যোগ কিংবা পরিবর্তন হতে পারে। জানাবো পরবর্তী আপডেটে….
সবাই দোয়া করুন সোনামণিটার জন্য।

দয়া করে কেউ  হসপিটালে ভীর জমাবেন না।
11933378_10203547610849130_1716352622693674542_nক্যাসপারের জন্য চলুন কিছু করি, এটি একটি ফেইসবুক ইভেন্ট।ইভেন্টটি দেখে এবং ক্যাসপারের কথা জেনে এই পোষ্ট শেয়ার না করে পারলাম না। এই পোষ্ট পড়ে যদি কোন সহৃদয় মানুষ ক্যাসপারের পাশে এসে দাড়ান,অন্তত দোয়া করেন ক্যাসপারের রোগ মুক্তির জন্য তাহলেই আমার প্রচেষ্টা সার্থক হবে। ইভেন্টের সমস্ত লেখাটিই কপি করে দিলাম এখানে।
——-
ক্যাসপার। মুহাম্মদ সাদমান ক্যাসপার । ছেলেটার বয়স চার। আমাদের ট্রাভেলার কমিউনিটির আদরের ছোট্ট পিচ্চি। কালপুরুষ অপুদা’র ছেলে। আদুরে, তুলতুলে পুচকাটার যখন জন্ম হয়, মা ছিলেন অসুস্থ। ক্যাসপার বেড়ে উঠেছে তার বাবার কোলে। ক্যাসপারের বাবা, অপু, একজন ট্রেকার। ‘রোপ নিসো? মগ? কবে আসবা? ক্যাসপারের আধো আধো বোল শুরু হয়েছে এসব কথা দিয়ে।হতেই হবে। ক্যাসপার তো তার বাবার ‘কইলজা!’

ক্যাসপার মা বাবার সঙ্গে চট্টগ্রামে থাকে। ক্যাসপার বড় হলে বাবার মতো ট্রেকার হবে।বিয়ার গ্রেইলের মতোও হতে পারে, ওই শো’টার সবগুলো পর্ব ক্যাসপারের মুখস্ত।তাই সে নিজের কাজ এখন থেকেই নিজে করে। ভাত খাওয়া, খেলা শেষে নিজের খেলনা গুছিয়ে রাখা, টয়লেট শেষে নিজে নিজেই পানি ঢেলে দেয়া। বাজে গন্ধ ক্যাসপার একফোঁটাও পছন্দ করে না।
তখনই বাধলো সমস্যাটা। ক্যাসপার দেখেছে তার টয়লেটের সাথে ঝরঝর করে রক্ত যাচ্ছে। বোঝেনি, কী সর্বনাশটা চলছে নিজের ভেতর। ব্যথা পায়, কাঁদে, কাউকে বলেনা। চার বছরের বাচ্চা, কীভাবে বোঝাবে? একদিন মায়ের সন্দেহ হল। ছেলে টয়লেটে কাঁদছে, জোর করে ভেতরে গেলেন। এবং রক্তের পরিমান দেখে স্তব্ধবাক হয়ে পড়লেন। এতো রক্ত!

ক্যাসপার এখন হাসপাতালে। সবকিছু টেস্ট করা শেষ। সবরকম স্ক্যান। কলনোস্কোপিও শেষ। ওর না হয়েছে পলিপ, না হয়েছে হেমারেজ, না হয়েছে পাইলস্। পাকস্থলিতে ঘা নেই, অন্ত্রেও সমস্যা দেখা যায়নি। একটু আগে রয়েল হাসপাতালে সার্জারি হল। না, কোন সোর্স পাওয়া যায়নি, কোথা থেকে রক্ত যাচ্ছে।ডাক্তাররা বলছেন রেয়ার কেস, এর সল্যুশন তাঁদের পক্ষে সম্ভব না। ছেলেটা বেঁচে আছে ডোনেট করা ও পজিটিভ ব্লাড আর স্যালাইনের ওপরে। ছোট্ট শরীরে রক্ত ঢুকছে ফোঁটায় ফোঁটায়, আর পায়ুপথে বেরিয়ে যাচ্ছে ঝর্ণার মত। ক্ষণে ক্ষণে ছেলেটা লেপ্টে যাচ্ছে বিছানায়। রক্তে হিমোগ্লোবিনের মাত্রা কমছে প্রতি মুহুর্তে।

ক্যাসপারকে ঢাকায় আনা প্রয়োজন। যত দ্রুত সম্ভব। কিন্তু অপারেশনের টেবিল থেকে উঠলোই গতকাল রাতে, ঘা এখনো কাঁচা। চট্টগ্রামের ডাক্তাররা বলছেন, অন্তত ৭দিন অপেক্ষা করতেই হবে ঘা শুকানোর জন্যে। কিন্তু ততোদিনে তো ব্লিডিং বন্ধ হবেনা। যে হারে এখনো ব্লাড জমছে পায়ুপথের নলে, পুরো শরীরের রক্ত বের হতে সময় লাগবে মাত্র কটা’দিন।

প্রায় সবাই কনফার্ম করেছেন, রোগ নির্ণয় এবং চিকিৎসার জন্যে পিজিতে সবচে ভালো ডাক্তার পাওয়া যাবে। আরেকজন কনফার্ম করলেন, কিন্তু সেখানে সিট নেই, পলিটিক্যাল লিংক ছাড়া সিট হয়না। শিশু হাসপাতাল আর ঢামেক এর কোন ভালো আপডেট পাচ্ছিনা এখনো। সবচে খারাপ কথা, ক্যাসপারের বাবা, অপুর এখনো এতটা সামর্থ্য হয়নি যে হেলিকপ্টারে করে,বা এয়ার চার্টারে করে ছেলেকে উড়িয়ে নিয়ে আসবে এখানে। আর আনার পরে? চিকিৎসা হবে কার সামর্থে? অপু ছোটখাট একটা ব্যবসা করে, এই-ই।

আমি বলতে পারছি না ওর কী হয়েছে, বলতে পারছি না ওর চিকিৎসা কে করবে, এও জানিনা আসলেই ওর রোগটা কেউ ধরতে পারবে কী না। শুধু এইটুকু নিশ্চিত করে বলতে পারি, ক্যাসপারের ছোট্ট শরীরের ক্ষুদ্রতম জীবনকণাগুলো বেরিয়ে যাচ্ছে অকাতরে। আমরা কী পারি না সেগুলো ধরে রাখার চেষ্টাটুকু অন্তত করতে?

তাই বাস্তব দুনিয়ার সবচে বিচ্ছিরি কিন্তু সবচে জরুরী সাহায্য চাইছি সবার কাছে। আপনার পক্ষে কি কিছু আর্থিক সামর্থ্য পাঠানো সম্ভব? বেশি না, দুহাজার মানুষ অন্তত ১০০০ টাকা করে দিলেই হয়তো ওকে বাইরে নিয়ে যাওয়ার একটা চেষ্টা অন্তত করা যাবে।

১৬কোটি মানুষের দেশে মাত্র ২০০০ মানুষ মিলে কী একটা চেষ্টা করতে পারি না? পারি না একটা ফাইট দিতে?

= = সাহায্য পাঠাতে চাইলে অ্যাকাউন্ট নম্বর :

# Account Name: MD TOFAJJAL HOSSAIN
Account Number: 102.101.0155656
Dutch Bangla Bank Ltd, Agrabad Branch

# A/C Name: Sarif Md. Forhan Zaman
A/C Number: 4101-334917-441
AB Bank Ltd, Agrabad Branch

আপনি সমর্থ্য হতে নাই পারেন। আপনার পাশের মানুষটি হয়তো পারবে। তাকে জানান অন্তত বিষয়টি। প্লিজ। আসুন না একটা ছোট্ট ভুতকে বাঁচাই। প্লিজ এগিয়ে আসুন। একটু ভালোবাসা বোধহয় একটা অবুঝ শিশু পেতেই পারে।

বলুন না, খুব কী গায়ে লাগবে ২০০০ মানুষ মিলে ১০০০ টাকা করে দেয়ার ব্যথা?
ক্যাসপারের চাইতেও বেশি?

## এই ইভেন্টটি ব্যক্তিগত উদ্যোগ থেকে করা হলো। কালপুরুষ অপু’দা অথবা রিলেটেড অনেকেই যুক্ত হয়েছেন। আমরা অফিসিয়ালি জানাবো। উনারা সবাই এই ইভেন্ট থেকেই কাজ করছেন। সুতরাং, সাথেই থাকুন। ক্যাসপার ফিরবেই।

 

ক্যাসপার যখন সুস্থ্য ছিল এমন একটি ফটো
ক্যাসপার যখন সুস্থ্য ছিল এমন একটি ফটো

 সর্বশেষ আপডেট এসেছে ৩ঃ৫৫ মিনিটে-
সবার দৃষ্টি আকর্ষন করছি, আমরা জানি না ক্যাসপারের চিকিত্সাবাবদ কত খরচ হতে পারে, তাই চিকিত্সা বাবদ সঠিক খরচ কত হতে পারে তা না জানা পর্যন্ত আপাততঃ কেউ আর সাহায্য পাঠাবেন না, তবে যারা যারা সাহায্য পাঠাতে চাচ্ছিলেন তারা নিজেদেরকে প্রস্তুত রাখুন যেন দরকার হলেই সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিতে পারেন, আলহামদুলিল্লাহ্ আপনাদের এই প্রয়াস যে কারো চিকিত্সার প্রয়োজনে আর্থিক সহযোগিতার দৃষ্টান্ত হয়ে থাকবে….

আমরা প্রস্তুত থাকি ক্যাসপারের পাশে দাড়ানোর এবং তার সুস্থ্যতার জন্য প্রার্থনা করি।

 

৪৯৩জন ৪৯৩জন
0 Shares

৩৩টি মন্তব্য

মন্তব্য করুন

লেখকের সর্বশেষ মন্তব্য

ফেইসবুকে সোনেলা ব্লগ