সোনেলা দিগন্তে জলসিড়ির ধারে

ঘটনা এক
——–
কয়েকদিন আগে ফেসবুক খুলেই মাই ডে তে পোস্ট করা এক মায়ের চোখের জলের ছবি দেখলাম। উনি আমার এক ফেসবুক বন্ধু। দুইটা ছেলেমেয়ের মা। উনি ডিভোর্সি। ছেলেমেয়েকে নিয়ে এতোদিন ছিলেন। সাত বছর ধরে ছেলে তার কাছেই ছিলো এখন সাত বছর পর বাংলাদেশের আইন অনুযায়ী বাচ্চার কাস্টডি বাবা পাবেন তাই ছেলে বাবার কাছে গতো এগারো মাস ধরে। এতোদিন বাবা খোঁজ করেনি, এখন ছেলের অধিকার তার??? তার মানে মা কি শুধু একটা বাচ্চার ন্যানি? পালন করবে এরপর বাবার?

আমি প্রায়ই তার ছেলের জন্য হাহাকার করা পোস্ট দেখি। উনার বাচ্চা ছেলেটার কাল জন্মদিন ছিলো, জন্মদিনে ছেলেরে একটু উইশ করার জন্য উনি বারবার তাদের কাছে অনুরোধ করেছেন, একটু কথা বলতে চেয়েছেণ তাকে সেটাও করতে দেওয়া হয়নি। উনার প্রতিদিনের ফেসবুক পোস্টে ছেলের জন্য হাহাকার, কান্না। এক মা নিজে যে বাচ্চাকে জন্ম দিয়েছেন তিনি আজ সেই সন্তানের জন্মদিনে একটু কথা বলতে পারছেন না এর থেকে কষ্টের আর কি আছে আমি জানি না। এই হলো আইন, সমাজ, সমঅধিকার….. নারী অধিকারের চেহারা……. । আমার ভয়ানক মন খারাপ হয়ে গেলো ওই মায়ের ছবিটা দেখে॥

ঘটনা দুই
——-
পরিচিত একটা আন্টির কথা মনে পরছে। উনার হাজবেন্ড কিছু অন্যায় হলেই ওনারে বাসা থেকে বের করে দিতেন। উনি ওনার কাপড়চোপড় নিয়ে একটা ছোট ব্যাগসহ বের হয়ে যেতেন। এরপর এলাকা দিয়ে ঘুরতেন, উনার যাওয়ার জায়গা ছিলো না। নিজের পছন্দের বিয়ে বলে বাপের বাড়িও বলতে পারতেন না, তারতো হাসাহাসি করবে। উনার দুই বাচ্চা, বহুদিনের গোছানো ঘরবাড়ি সব মুহূর্তে নেই হয়ে যেতো….. উনারে গেট লস্ট বলে বের করে দেওয়া হতো। মানুষজন উনার দিকে অবাক হয়ে তাকাতো, তখন উনার কি মনে হতো? মনে হতো নিজেরে কোনোভাবে অদৃশ্য করে ফেললে হয়তো বেঁচে যাওয়া যেতো। শুনেছিলাম উনি নাকি অনেকবার সুইসাইড করতে গেছেন পারেন নাই….. মায়া…. মায়া বড় খারাপ জিনিস। তখন ছোট ছিলাম অতো বুঝতাম না। এখন তার কথা মনে করি…. একটা ব্যাগ হাতে অসহায় এক রমনী। এরপর উনার হাজবেন্ড এক সময় উনারে ডেকে নিয়ে যেতেন। আপনারা হয়তো বলবেন উনার আত্মসম্মান নেই, তাই যেতেন। কিন্তু উনি ফিরতেন কারণ আর কিছু তার করার ছিলো না। প্রতিবার উনার ভয় হতো হয়তো এবার আর উনারে ডাকা হবে না। এরপর ডাকা হতো, উনি পুরান খেলনার মতো ফিরতেন, যাকে ইচ্ছে করলে ফেলে দেয়া যায়, ইচ্ছে করলে ঘরে রাখা যায়।

—————
আমরা নারীরা এমন ভাবেই থাকি, রাখা হয় আমাদের।

৩৪৩জন ২৩২জন
31 Shares

১০টি মন্তব্য

মন্তব্য করুন

ফেইসবুকে সোনেলা ব্লগ

লেখকের সর্বশেষ মন্তব্য