সিদ্ধান্ত পাক্কা । কোটি পতি স্বামী খুঁজে নেয়ার স্কুল ও কলেজ চালু করবো বাংলাদেশে । যেই ভাবা সেই কাজ , স্কুল ও কলেজের জন্য সাইট সিলেকশন সম্পন্ন । আগ্রহী মেয়েরা যোগাযোগ করুনঃ
প্রিন্সিপাল লীলাবতী
মোবাইলঃ ০১৯১ ( এরপরে সাইনবোর্ডে আর লেখা নেই )

কোটি পতি স্বামী প্রায় সব মেয়েই চান। পাত্র কোটিপতি , এমন পাত্র প্রায় সব বিবাহযোগ্য মেয়ের পিতামাতা এবং মেয়ের কাছে আকাংখিত । মেয়েরা নিজেই যাতে কোটি পতি স্বামী খুঁজে নিয়ে জীবন সঙ্গী করতে পারেন এই চিন্তা থেকেই এই স্কুল ও কলেজে প্রতিষ্ঠার সিদ্ধান্ত নিয়েছি। আশাকরি মেয়েরা এতে খুব উপকৃত হবেন । কিভাবে কোটি পতি স্বামী খুজবেন এবং পটাবেন তা এই স্কুল ও কলেজে শিক্ষা দেয়া হবে।

নেট ব্রাউজ করতে গিয়ে চিনের একটি স্কুলের সন্ধান পেয়ে যাই । যেখানে মেয়েদের শিক্ষা এবং প্রশিক্ষন দেয়া হয় এ বিষয়ে । চিনের দক্ষিন- পশ্চিমাঞ্চলীয় প্রদেশ সিচুয়ানের চেংডু অঞ্চলে এই স্কুলটি অবস্থিত । স্কুলের নাম  ফিমেইল স্কুল । স্কুলের প্রধান সুফেই নামের একজন মহিলা, যিনি নিজেই একজন কোটিপতি স্বামীর স্ত্রী । এই স্কুলের মেয়েদের ধনী ব্যাক্তিদের সাথে পরিচয় করিয়ে দেয়া হয়।

সুফেইর প্রশিক্ষন পদ্ধতিঃ
১ .  যদি আপনি একজন ধনী ব্যাক্তিকে স্বামী বা প্রেমিক হিসেবে পেতে চান , তাহলে তাঁর শখের বিষয় গুলো জেনে নিন। তিনি নিয়মিত যে সব স্থানে যান তার খোজ নিন । তারপর ভান করুন যে কাকতালীয়ভাবে তাঁর বেড়ানোর জায়গা এবং শখ এর সাথে আপনার হুবহু মিল আছে ।
২ . প্রথম ডেটিংয়ের সময়ে তাঁর সামনে আপনি বাতির নীচে ৩০-৪৫ ডিগ্রী কোনে বসবেন। এতে আপনার মুখটা অনেক সুন্দর লাগবে।
৩ . ধনী ব্যক্তির সাথে যখন রেস্তোরাঁয় খাবেন , তখন কোন ভাবেই দামী খাবারের অর্ডার দিবেন না । কোন দামী গিফট তাঁর কাছ থেকে পেতে চাইবেন না ।
৪ . ধনী ব্যাক্তিরা সব সময় শিক্ষক , চিকিৎসক এবং সরকারী চাকরিজিবিদের পছন্দ করেন।
৫ . তাঁরা বিমানবালা , সাংবাদিক ও দোকানমালিক মেয়েদের মোটেও পছন্দ করেন না।


ধনী স্বামী পাবার স্কুলে ক্লাস নেয়া হচ্ছে
 
, ( ক্লিক করে লিংক দেখুন )


পটানোর প্রকাটিকাল ক্লাস করা হচ্ছে
 
, ( ক্লিক করে লিংক দেখুন )


কোর্স করতে আসা মেয়েদের ছবি , সাথে স্কুল প্রধান সুফেই ।


কোর্স সমাপ্তির পরে সফল মেয়েরা । যাও এখন কোটিপতি খুঁজে নাও স্বামী হিসেবে 🙂

আরো খবর জানতে এখানে ক্লিক করুন

৫১০জন ৫০৯জন
0 Shares

২৩টি মন্তব্য

মন্তব্য করুন

ফেইসবুকে সোনেলা ব্লগ

লেখকের সর্বশেষ মন্তব্য